Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : রবিবার, ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০২:২৪
ভারতে কাল বনধের ডাক দিল কংগ্রেস
নয়াদিল্লি প্রতিনিধি

জাতীয় কংগ্রেস দল কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ‘ভারত-বনধের’ ডাক দিয়েছে। আগামীকাল সোমবার গোটা ভারতে সকাল ৬টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত হরতালে দেশের সব রাজ্যে জনজীবন অচল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কংগ্রেস। মোদি সরকারের বিরুদ্ধে কংগ্রেস এই প্রথম বনধ ডাকল। কংগ্রেসের ডাকা এই বনধকে সমর্থন করছে ভারতের পাঁচটি বাম দল। সিপিআই, সিপিএম, ফরওয়ার্ড ব্লক, আরএসপি, এসইউসিআই ও সিপিআই (এম-এল) বনধে যোগ দেবে বলে ঘোষণা দিয়েছে। ফ্রান্স থেকে রাফাইল যুদ্ধ বিমান কেনার দুর্নীতির অভিযোগে সংসদের দ্বারা তদন্ত করার এবং পেট্রল-ডিজেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি এবং ডলারের বিনিময়ে রুপির দাম পড়ে যাওয়ার প্রতিবাদে এই হরতাল। বিরোধী দলগুলো বনধে (হরতালে) শামিল হলেও পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল কংগ্রেস এতে শামিল হবে না বলে জানিয়েছে। তবে তারা বনধের দাবিগুলোর প্রতি নৈতিক সমর্থন জানিয়েছে। তাই তারা প্রতিবাদ মিছিল করবে। কিন্তু রাজ্যে দোকান-পাট খোলা রাখার জন্য আবেদন করেছে। হরতালের ফলে সাধারণ যাত্রী পরিবহন এবং রেল চলাচল ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

জাতীয় কংগ্রেসের মুখপাত্র আর পিএন সিং সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ইউপিএ আমলে যখন রুপির দাম ডলারের বিনিময়ে ৬০ রুপি হয়েছিল তখন এই নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন ইউপিএ সরকার রুপিকে হাসপাতালের আইসিইউতে নিয়ে গিয়েছে। অথচ এখন রুপির বিনিময় মূল্য ৭২ রুপি ছাড়িয়ে গিয়েছে। দিল্লিতে পেট্রলের দাম লিটার প্রতি আশি রুপি এবং হরিয়ানায় নব্বই রুপিতে বিক্রি হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী মোদি কোনো জবাব দিচ্ছেন না। তিনি এও বলেন, এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডারের দামে ৭৫৮ রুপি হয়েছে। ইউপিএ আমলে দাম ছিল ৪১৪ রুপি। কেন্দ্রীয় সরকার পেট্রল-ডিজেলের বাড়তি দাম থেকে এগারো লাখ কোটি রুপি কামিয়েছেন। অথচ জনতাকে কোনো সুরাহা দিচ্ছেন না। এর প্রতিবাদে ভারত বনধ করা হবে সোমবার।

up-arrow