Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ২৩:১৬
খ্রিস্টান নাগরিকের বাড়িতে হামলা ভাঙচুর লুটপাট, আটক ৮
বেনাপোল প্রতিনিধি
bd-pratidin

যশোরের সীমান্তবর্তী উপজেলা শার্শার গিলাপোল গ্রামে চাঁদার দাবিতে মিলন বাহিনী শনিবার রাতে খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের সলমন দাসের (৪৩) বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর ও লুটপাট করেছে। এ সময় বাড়ির মহিলাদের পিটিয়ে আহত করে। পুলিশ এ ঘটনায় ৮ জনকে আটক করেছে। আহত সলমন দাস উলাশী ইউনিয়নের গিলাপোল গ্রামের জুরান দাসের ছেলে। পুলিশ ও সলমন দাস জানান, কুখ্যাত মিলন বাহিনী দীর্ঘদিন ধরে তার কাছে মোটা অঙ্কের চাঁদা দাবি করে আসছিল। চাঁদা দিতে অপারগতা প্রকাশ করলে শনিবার রাত সাড়ে ১০টায় মিলন তার দলবল ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে সলমন দাসের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাঙচুর ও মারপিট করে। এ সময় ঘরে রাখা জমি বিক্রির নগদ সাড়ে ৩ লাখ টাকা, ৮ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ৩টি দামি মোবাইল সেট লুট করে নিয়ে যায়। চলে যাওয়ার সময় তারা বাড়ির আসবাবপত্র ও টিভি ভাঙচুর করে। মিলন বাহিনীর ক্যাডার ও লাঠিয়াল বাহিনীর সদস্য ভাইপো আশিক, মমিন, আশরাফুল, ম্যানেজার শরীফ, লালচাঁন, ড্রাইভার ভুট্টোসহ আরও অনেকে তার বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর চালায়। এ সময় তার বাবা, স্ত্রী ও দুই মেয়েকে লাঞ্ছিত করা হয়। উলাশী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আলহাজ আয়নাল হক বলেন, মিলন আমার ইউনিয়ন পরিষদের একজন সদস্য। সন্ত্রাসী কার্যকলাপ পরিহার করার জন্য তাকে আমি অনেকবার নিষেধ করেছি। আমি ঘটনাটি জানার পর পুলিশকে জানাই এবং সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে যাই। মিলন বাহিনী অবৈধভাবে একটি পার্ক চালায়। যেখানে সব সময় অনৈতিক কর্মকাণ্ড চলছে। শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এম মশিয়ার রহমান বলেন, ঘটনাস্থলে গিয়ে হামলার সঙ্গে জড়িত ৮ জনকে আটক করে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় ১৭ জনের নামে মামলা হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow