Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ টা
আপলোড : ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০২:১২

মোদি-হাসিনা ফের ভিডিও কনফারেন্স মঙ্গলবার

নয়াদিল্লি প্রতিনিধি

মোদি-হাসিনা ফের ভিডিও কনফারেন্স মঙ্গলবার

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আরও তিনটি গুরুত্বপূর্ণ রেল সংযোগ এবং ডিজেল পাইপ লাইন নির্মাণের আনুষ্ঠানিক সূচনা করবেন আগামী মঙ্গলবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, বিকালে দিল্লির সাউথ ব্লকে অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী মোদি, পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ, বাংলাদেশ হাইকমিশনার সৈয়দ মোয়াজ্জেম আলী উপস্থিত থাকবেন। তেমনি বাংলাদেশে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী এবং ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা উপস্থিত থাকবেন। এই প্রথম ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নতুন যুগ্ম সচিব বিকরম দোরাই স্বামী ঢাকায় থাকবেন।

মঙ্গলবারের অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রীরা থাকছেন না। ওই দিন ঘোষণা হবে শিলিগুড়ির নুমালিগড় তেল শোধনাগার থেকে পাবর্তীপুরের ডিপো পর্যন্ত ১৩০ কিলোমিটার পাইপ লাইন নির্মাণ। প্রায় সাড়ে ৩০০ কোটি টাকার ব্যয়ে নির্মিত এই পাইপ লাইনে ডিজেল সরবরাহ হলে অনেক সস্তা হবে। এখন রেল ওয়াগনে পাঠানো হয়। আড়াই বছরের মধ্যে এই পাইপ লাইন নির্মাণ শেষ হবে। এ ছাড়া গুরুত্বপূর্ণ ঘোষণা হবে ঢাকা-টঙ্গী তৃতীয়-চতুর্থ ৪৬ কি মি দ্বৈত লাইন এবং এগারো কিমি টঙ্গী-জয়দেবপুর ডুয়েল-লাইন। এই লাইন নির্মাণের উদ্দেশ্য হলো প্রথমে কেবলমাত্র পণ্য পরিষেবা পাঠানো। ঢাকার জন্য বর্তমানে যে লাইন রয়েছে তার ওপর চাপ কমানোই হবে মূল উদ্দেশ্য। এতে ভারতের উত্তর-পূর্বে সহজেই এবং চট্টগ্রাম বন্দর যোগাযোগ সহজ হবে। জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী মোদি ওই দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ইচ্ছা অনুযায়ী ১৯৬৫ সালের আগেরকার ভারত-বাংলাদেশ রেল সংযোগ নিয়ে ঘোষণা করবেন। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে বলা হয়েছে পশ্চিমবঙ্গের এবং কয়েকটি বেসরকারি বিদ্যুৎ সংস্থার প্রস্তাব নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার নীতিগত সম্মতি দিয়েছে।

এখন বাংলাদেশ সরকার যাতে সম্মতি দেবে তাতেই কাজ শুরু হবে। ইতিমধ্যেই পশ্চিমবঙ্গের ডিভিসি থেকে অতিরিক্ত ৩০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হয়েছে।


আপনার মন্তব্য