Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : বুধবার, ২৩ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ জানুয়ারি, ২০১৯ ২৩:১৯

দুই বিঘা জমি অবলম্বনে গ্রাস

সাংস্কৃতিক প্রতিবেদক

দুই বিঘা জমি অবলম্বনে গ্রাস

বিশ^কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘দুই বিঘা জমি’ কবিতা অবলম্বনে শিল্পকলা একাডেমিতে মঞ্চস্থ জলো ভিন্নধর্মী গল্পের নাটক ‘গ্রাস’। অনুরাগ থিয়েটার প্রযোজিত এই নাটকটি গতকাল সন্ধ্যায় মঞ্চায়ন হয়েছে একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার পরীক্ষণ থিয়েটার হলে।

শ্যামল দত্তের নাট্যরূপে নাটকটির নির্দেশনায় ছিলেন শিশির রহমান।

‘রাজার হস্ত করে সমস্ত কাঙালের ধন চুরি’ । এই প্রবাদ বাক্য নতুন কিছু নয়, যুগে যুগে এমনই  ঘটে। সময়ের সাথে চেহারা বদলায়, পোষাকও বদলায়, কিন্তু চরিত্র বদলায় না। এই বিষয়টি নাটকটিতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। আগে রাজা ও জমিদারদের যেই প্রত্যাশা ছিলো এখন সেই প্রত্যাশা দেশের অনেক মানুষের। আর অতিলোভী এসব মানুষের খামখেয়ালিপনায় এখনও মানুষ সর্বশান্ত হয়। গরীবের ভিটেমাটি গ্রাস করে অত্যাচারিরা গড়ে তোলে আধুনিক নগর সভ্যতা। কবিগুরুর কবিতার উপেন তার ঘরবাড়ি ছেড়ে যাওয়ার পর সে তার ভিটেমাটিতে ফিরে এসেছে কিনা সেটা কবিতায় তুলে ধরা না হলেও প্রভাবশালীদের দ্বারা সর্বশান্ত হয়ে এখনকার উপেনরা মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছে এই বিষয়টি নাটকটিতে তুলে ধরা হয়েছে। যুগে যুগে, দেশে দেশে উপেনদের দল ভারি হচ্ছে, আর ঘর ছেড়ে নিজ গ্রাম ছেড়ে উপেনরা দেশান্তরিত হচ্ছে। নিঃস্ব অসহায় মানুষগুলো পিষে যাচ্ছে, মিশে যাচ্ছে সভ্যতার শেকড়ে। মানব সভ্যতার আতুড় ঘর সবুজ শ্যামল গ্রামগুলোকে ধবংস করে তৈরি হচ্ছে দালান, পাষানের অট্টালিকা আরো উঁচু হচ্ছে। ফসলি জমি উজাড় করে চলছে আবাসন বাণিজ্য। আর সেই নিঃস্ব উপেনের দল এখনও ঘুরে বেড়াচ্ছে গ্রাম-গঞ্জ,শহরে। কারন তাদের সবকিছুই গ্রাস করে নিয়েছে ভালো মানুষের মুখোশ পরা সমাজের দূর্বৃত্তরা।

এভাবেই এগিয়েছে নাটকটির কাহিনি।

বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন- মোঃ শাহাদাত হোসেন শাহিদ, নিজাম নুর, মীর মিজানুর রহমান, জাহিদ হাসান আশিক, নুরুজ্জামনা নোমানী রিপন, নুপুর খান, আঁখি আক্তার সুমি, এ্যাপোলো রহমান এ্যানি, জোসনা হাওলাদার দোলা প্রমুখ।

জাতীয় পিঠা উৎসব ১৪২৫ শুরু : আজ শিল্পকলা একাডেমিতে শুরু হচ্ছে যুগপূর্তি জাতীয় পিঠা উৎসব ১৪২৫। ১০দিনের এই উৎসবের যৌথ আয়োজক শিল্পকলা একাডেমি ও জাতীয় পিঠা উৎসব উদ্যাপন পরিষদ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে দশদিনের এই উৎসবের উদ্বোধন করবেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি থাকবেন নাট্যজন রামেন্দু মজুমদার, আতাউর রহমান, নৃত্যশিল্পী আমানুল হক, চিত্রশিল্পী সমরজিৎ রায় চৌধুরী। অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জাতীয় পিঠা উৎসব উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি ম. হামিদ এবং স্বাগত বক্তব্য প্রদান করবেন জাতীয় পিঠা উৎসব উদ্যাপন পরিষদের সদস্য সচিব খন্দকার শাহ্ আলম। উৎসব অঙ্গনের উন্মুক্ত মঞ্চে প্রতিদিন বিকেল চারটা থেকে রাত নয়টা পর্যন্ত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে থাকছে নাটক, নৃত্য, আবৃত্তি, সংগীত, কৌতুক, যাদু প্রদর্শনী। গতকাল শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এসব জানান এই উৎসবের সাথে সংশ্লিষ্টরা।


আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর