Bangladesh Pratidin || Highest Circulated Newspaper
শিরোনাম
প্রকাশ : শুক্রবার, ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ টা
আপলোড : ২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০২:১২

জরুরি অবতরণেও বাঁচানো গেল না লন্ডন প্রবাসী যাত্রীকে

নিজস্ব প্রতিবেদক

জরুরি অবতরণেও বাঁচানো গেল না লন্ডন প্রবাসী যাত্রীকে

লন্ডনগামী অসুস্থ যাত্রীকে বাঁচাতে বিমান জরুরি অবতরণ করল। এর পরেও সেই যাত্রীকে বাঁচানো  সম্ভব হয়নি। ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পায়ে হেঁটে এয়ারক্রাফটে চড়লেও কফিনে করেই তাকে নামাতে হলো লন্ডনের হিথ্রোতে। বুধবার বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ঢাকা-লন্ডন ফ্লাইটে অসুস্থ হয়ে পড়েন লন্ডন প্রবাসী সালেহা। বিমানের বিজি-০০১ ফ্লাইটে চড়ে লন্ডনের উদ্দেশে রওনা দেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ নাগরিক শেখ সালেহা উদ্দিন। বিমানের ফ্লাইট সার্ভিসের একটি সূত্রে জানা গেছে, বুধবার বেলা ১১টায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে সালেহাকে বহনকারী বিমানের বোয়িং ৭৭৭-৩০০ এয়ারক্রাফটটি সরাসরি হিথ্রোর উদ্দেশে ঢাকা থেকে উড্ডয়ন করে। ফ্লাইটটির ককপিটে ছিলেন ক্যাপ্টেন ইসহাক, ক্যাপ্টেন হাসনাইন ও ক্যাপ্টেন জাকির। তারা জানান, এয়ারক্রাফটটি রাশিয়ার আকাশে প্রবেশের পর সালেহা অসুস্থতা অনুভব করেন। ক্রুরা প্রয়োজনীয় সেবা দেন।  এক পর্যায়ে তিনি সংজ্ঞাহীন হয়ে পড়লে অক্সিজেন মাস্ক পরানো হয়। এ সময় যাত্রীদের মধ্যে থাকা একজন চিকিৎসক ক্রুদের জানান, সালেহাকে বাঁচাতে হলে এক্ষুনি হাসপাতালে ভর্তি করানো প্রয়োজন। কারণ তার ব্লাড সুগার দ্রুত কমে যাচ্ছিল।

অবস্থার অবনতি দেখে ফ্লাইটের ক্যাপ্টেন আজারবাইজানের বাকু ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টের এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোল-এটিসির সঙ্গে যোগাযোগ করে ইমার্জেন্সি ল্যান্ডিংয়ের অনুমতি চান এবং সেখানে অবতরণ করেন। বাকু বিমানবন্দরে জরুরি চিকিৎসা কেন্দ্রে এক ঘণ্টার বেশি সময় চিকিৎসাসেবা দিয়ে তার শ্বাস-প্রশ্বাস পাওয়া যায়নি। ধারণা করা হচ্ছে, তিনি আজারবাইজানের আকাশেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন।

বিমানের লন্ডন স্টেশনের একজন কর্মকর্তা জানান, এয়ারক্রাফটটি বিকাল ৪টায় হিথ্রোতে অবতরণের কথা থাকলেও সালেহার মৃত্যুর কারণে ৫ ঘণ্টা বিলম্বের পর স্থানীয় সময় রাত ৯টায় হিথ্রোর রানওয়ে স্পর্শ করে।


আপনার মন্তব্য