Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১১ জুন, ২০১৬ ১৬:৩১
ইফতারে মজাদার পুডিং
সাহাদাত উদরাজি
ইফতারে মজাদার পুডিং

সারা বিশ্বে ডিম ও দুধের মিশ্রণে যে খাবারটা সবচে' বেশি জনপ্রিয় তা হচ্ছে পুডিং। আমি যত দেশে গেছি, সব জায়গায় ঘরে ঘরে এবং হোটেলে এই খাবারের দেখা পেয়েছি। পুডিং তৈরির প্রসেসগুলো একটু জটিল। তবে মিশ্রণটা ঠিকঠাক মতো করতে পারলে একটুও কঠিন নয় কিন্তু। তাহলে আসুন ঝটপট তৈরি করি মজাদার পুডিং।  

উপকরণ:

– দুধ, ৭৫০ এমএল বা হাফ লিটারের বেশী (যা জ্বাল দিয়ে অর্ধেক করে, পরে ঠাণ্ডা করে নিতে হবে)

– ডিম ৪টা 

– চিনি, ৫/৭ টেবিল চামচ (চিনি বেশী পছন্দ করলে আরো দিতে পারেন)

– হাফ টেবিল চামচ ঘি বা মাখন/বাটার (গলিয়ে)

ধাপ সমূহ:

১। দুধ প্রসেস

২। ডিম চিনি ও ঘি’র মিশ্রণ

৩। ক্যারামেল দিয়ে পুডিং রান্না বাটি প্রসেস

৪। দুধ ও ডিম (চিনি+ঘি) মিশ্রন ফাইন্যাল প্রসেস এবং ক্যারামেলের বাটিতে রাখা

৫। মূল পর্ব

৬। পরিবেশনা (ঠাণ্ডা চাইলে ফ্রিজে রাখতে হবে)

প্রণালী:

দুধ প্রসেস: হাফ লিটার ফুল ক্রিম দুধ নিন। বাজারে পাওয়া ইউএসটি মিল্ক নিলেই ভাল বা খাঁটি গরুর দুধ নিতে পারেন, পানি মিশানো নয়। জ্বাল দিয়ে অর্ধেক করে ফেলুন, মোটা মুটি এককাপ গাঢ় দুধ হলে চলবে। দুধ চুলায় দিয়ে কোথায় যাবেন না, মনে রাখবেন দুধ আগুনে উপছে পড়ে কাজেই কাছে থাকুন এবং নাড়াতে থাকুন। দুধ গাঢ় হয়ে গেলে নামিয়ে ঠান্ডা করে নিন। (কিছুতেই গরম নয়!)

ডিম, চিনি ও ঘি’র মিশ্রণ: ডিম ভালো করে ফাটিয়ে নিন, বিটার দিয়ে ফাটানো ভাল। শুধু মনে রাখবেন যেন, ভাল মিশ্রণ হয়। এবার চিনি দিন। যারা বেশী মিষ্টি পছন্দ করেন তারা বেশি দিতে পারেন তবে আমি মনে করি চিনি কম খাওয়াই ভাল এবং টেবিল চামচে ৫/৬ চামচ দিলেই হবে। চিনি দিয়েও ভাল করে মিশিয়ে নিন।

এবার হাফ টেবিল চামচ ঘি বা বাটার (গলিয়ে) দিন এবং আবারো ভাল করে মিশিয়ে নিন (আমি বাটার বা মাখন দিয়েছি)। হয়ে গেলো ডিম, চিনি, ঘি এর মিশ্রন।

ক্যারামেল দিয়ে পুডিং রান্না বাটি প্রসেস: পুডিং বাটিতে ক্যারামেল (চিনি) বসানোর প্রসেস দেখে নিন। যে বাটিতে পুডিং বসাবেন সেই বাটি অবশ্যই এলুমিনিয়ামের হতে হবে। (এই ধরনের বাটি যে কোন গ্রোসারিতে পাওয়া যায়, আমরা টিফিনের বাটিতে বসিয়েছিলাম) বাটিতে এক চা চামচ চিনি ছিটিয়ে দিন। বেশী নয়। কয়েক চামচ চিনি দিন। মাঝারি আঁচে চিনি গলে সিরা হয়ে লাল হতে থাকবে। আগুন কমিয়ে দিন এবং নাড়িয়ে এই লাল সিরা পুরা বাটিতে বিছিয়ে লাগিয়ে দিন। বাটিতে ক্যারামেল বসে গেল এবং চুলা থেকে সরিয়েবাটি ঠাণ্ডা করে নিন।

দুধ ও ডিম (চিনি+ঘি) মিশ্রণ ফাইন্যাল প্রসেস এবং ক্যারামেলের বাটিতে রাখা। ঠাণ্ডা দুধ, ডিম এবং চিনি ঘিয়ের মিশ্রণে ঢালুন এবং ভাল করে মিশিয়ে নিন। মনে রাখবেন যদি দুধ সামান্য গরম থাকে তবে ডিমকে জমাট করে ফেলবে। কাজেই দুধ খুব ঠাণ্ডা করে নিয়েই মিশাতে হবে।

এবার এই মিশ্রণ ক্যারামেলের বাটিতে ঢালুন এবং এই সাইজেই পুড়িং বের হয়ে আসবে।

মূল পর্ব: এবার মুল রান্না। একটা বড় খোলা পাত্রে পানি নিন এবং তাতে এমন একটা স্ট্যান্ড বসিয়ে নিন। স্ট্যান্ড না থাকলে পানি কম দিবেন যাতে পুড়িং এর বাটি বসালে নড়বে না। পাত্রের মাঝামাঝি পুডিং এর বাটি বসিয়ে দিন। পুডিংয়ের বাটিতে একটা ঢাকনা দিন। এবার বড় পাত্রের ঢাকনা দিন।

আগুন মাধ্যম আঁচে চলবে। মিনিট ৩০ লাগতে পারে। আগুন কমিয়ে দিলে পানি ফোটা বন্ধ হবে এবং পুডিংয়ের বাটির ঢাকনা উলটে একটা টেস্ট করে দেখুন পুডিং হল কি না। একটা চামচের পিছনের অংশ পুডিং এ প্রবেশ করান যদি দেখেন চামচ সহজেই প্রবেশ করছে এবং পুডিং এর কাই লেগে নাই, তা হলে পুডিং হয়ে গেল। আর যদি লাগে তবে আবারো ঢাকনা দিয়ে আরো কিছুক্ষণ পানি গরম করুন।


হয়ে গেলে তুলে রাখুন, ঠাণ্ডা হতে দিন। একটা পরিবেশনের প্লেট নিন। একটা ছুরির মাথা দিয়ে পুড়িং এর চার পাশ একটু নাড়িয়ে দিন। এটা এই জন্য করবেন যেন বাটি উলটে দিলে পুরা পুড়িং খুলে যায়। বাটির উপরে প্লেট ধরে খুব আলতো ভাবে উলটে দিন। জোর জবর দোস্তি করার দএকার নেই। পুরোটাই খুলে পড়বে।

পরিবেশন: পরিবেশনের জন্য প্রস্তুত, চাইলে গরম গরম খেতে পারেন। অাবার ঠাণ্ডা করে ফ্রিজে রেখেও খেতে পারেন।  

 


বিডি-প্রতিদিন/ ১১ জুন, ২০১৬/ আফরোজ

 

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow