Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২২ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : ১৫ জুলাই, ২০১৬ ১০:২১
আপডেট : ১৫ জুলাই, ২০১৬ ১১:৫৩
'বৃদ্ধাঙুল চোষা' শিশুদের এলার্জি ঝুঁকি কম
অনলাইন ডেস্ক
'বৃদ্ধাঙুল চোষা' শিশুদের এলার্জি ঝুঁকি কম

শিশুদের আঙ্গুল চোষাকে কটি বদভ্যাস হিসেবেই দেখা হয়। অনেক মা-বাবা তাদের শিশু সন্তানের এই অভ্যাসের কারণে বিরক্ত হন। কিন্তু নতুন এক গবেষণা বলছে ভিন্ন কথা। যেসব শিশু আঙুল চোষে বৃদ্ধ বয়সে তাদের এলার্জিতে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কম থাকে বলে এক গবেষণায় দেখা গেছে। একই নোখ কামড়ালেও একই ধরনের ফল পাওয়া যায় বলেও গবেষণায় দেখা গেছে।


গবেষণায় প্রাপ্ত তথ্যে দেখা গেছে, যে সব শিশুর বৃদ্ধাঙ্গুল মুখে দেওয়া এবং দাঁত দিয়ে নক কাটার অভ্যাস আছে তারা এটোপিক সেনশেসন নামে পরিচিত এলার্জিতে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। সাধারণত ঘরের ময়লা, ঘাস, বিড়াল, কুকুর, ঘোড়া, বায়ুবাহিত এলার্জিকে এটোপিক সেনশেসন নামে অবিহিত করা হয়।


গবেষক দলের অন্যতম একজন সদস্য কানাডার ম্যাকমাস্টার বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ম্যালকম সিয়ার্স। তিনি বলেন, 'আমাদের গবেষণার ফলাফলে দেখা গেছে, মুখে বৃদ্ধাঙ্গুল দিয়ে রাখলে ময়লা বা জীবাণু তাড়াতাড়ি এক্সপোজার উন্নয়নশীল এলার্জি ঝুঁকি কমায়। এটি স্বাস্থ্যবিধি তত্ত্বের সঙ্গেও সামঞ্জস্যপূর্ণ। '

গবেষণার ফলাফলে দেখানো হয়েছে, দাঁত দিয়ে নক কাটা ও বৃদ্ধাঙ্গুল মুখে দিয়ে রাখার মতো বাল্যকালের সাধারণ কিছু অভ্যাস শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থাপনায় প্রভাব বিস্তার করে। এতে এলার্জি প্রতিক্রিয়া উন্নয়নে ব্যাঘাত ঘটায়। ফলে এলার্জি আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমে।

গবেষণায় নিউজিল্যান্ডের ৫ থেকে ১১ বছর বয়সের ১ হাজারে বেশি শিশুকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৩১ শতাংশ শিশুরা বেশিরভাগ সময় মুখে বৃদ্ধাঙ্গুল দিয়ে রাখে এবং বার বার দাঁত দিয়ে নক কাটে।

এর মধ্যে যে সব শিশুর একটি অভ্যাস রয়েছে, তাদের এলার্জি আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি ৩১ শতাংশ কমে যায়। অন্যদিকে যে সব শিশুর এই দুটি অভ্যাস রয়েছে তাদের এলার্জি আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি ৪০ শতাংশ পর্যন্ত কমে যায়।

 

বিডি-প্রতিদিন/১৫ জুলাই ২০১৬/শরীফ
 

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow