Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০৯:৩০
বুদ্ধিমত্তার চিহ্ন হতে পারে অলসতা!
অনলাইন ডেস্ক
বুদ্ধিমত্তার চিহ্ন হতে পারে অলসতা!

পরিশ্রমীরা অলস মানুষদের দেখলে খুব বিরক্ত হবেন এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এই অলস মানুষদেরও বিশেষ বৈশিষ্ট্য রয়েছে। ইনডিপেনডেন্টে প্রকাশিত সাম্প্রতিক এক গবেষণায় বলা হয়, অলস মানুষরা পরিশ্রমীদের চেয়েও বুদ্ধিমান হতে পারে। আমেরিকার ওই গবেষণা বলছে, উচ্চ বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন মানুষরা খুব সহজেই একঘেয়ে হয়ে পড়েন না। ফলে তারা অনেক বেশি চিন্তার সুযোগ পান। কিন্তু যারা চিন্তা করতে পছন্দ করেন না তারা খুব সহজে একঘেয়েমিতে পড়ে যান। এ থেকে বেরিয়ে আসতে তাদের দৈহিক শ্রমে ব্যস্ত হতে হয়।

প্রথম প্রথম এই গবেষণা ফলাফলটি পড়ে বেশ অদ্ভুত লেগেছে। কিন্তু একে জীবনে প্রয়োগ করলে আসল বিষয়টি বোঝা যাবে। এখন ছুটির দিনটিতে চারদিকে ঘোরাফেরা না করে চুপচাপ বসে চিন্তা করলে সময় কেটে যায়। ঐ গবেষণায় আরও বলা হয়, চিন্তায় ডুবে যাওয়ার বিষয়টিকে যদি আরও আরামদায়ক ও সহজ করে তোলা যায় তবে দারুণ ফল মেলে। একগাদা কাজ হাতে না রেখে শুধু চিন্তায় ডুবে যেতে হবে। তাই বলে স্লথের মতো হলে চলবে না। অলসতা প্রকাশ পাবে চিন্তায় ডুবে থাকার কারণে।

দিনের যে সময়টা কাজ থাকে না তখন যে বাইরে ঘুরতে যেতেই হবে এমন কোনো কথা নেই। সে সময়টা বরং বিছানায় আয়েশী ঢংয়ে শুয়ে গভীর চিন্তা করতে পারেন। যেকোনো চিন্তা হতে পারে। কাজের চিন্তা, চলতি মাসের পরিকল্পনা ইত্যাদি। কিংবা অন্য যেকোনো বিষয়ে গভীর চিন্তা হতে পারে। আসলে শ্রম মানুষকে অনেক দূর এগিয়ে নেয়। কিন্তু অলসতাকে যদি চিন্তায় রূপ দেওয়া যায় তবে বুদ্ধি ঝালাইয়ের সুযোগ মিলতে পারে।  

সূত্র : বিজনেস ইনসাইডার


বিডি প্রতিদিন/১০ সেপ্টেম্বর ২০১৬/হিমেল-০৭

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow