Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০৯:৫৫
মানিব্যাগের রং-ই নির্ধারণ করে ধনভাগ্য
অনলাইন ডেস্ক
মানিব্যাগের রং-ই নির্ধারণ করে ধনভাগ্য

প্রাচীন চিনা বাস্তুশাস্ত্র বা ফেং শুই মানুষের ধনভাগ্য নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করে। মানবজীবনে রং ও বস্তু কী কী প্রভাব ফেলতে পারে, ফেং শুই-এর অন্যতম উপজীব্য।

ফেং শুই মতে, আপনার ওয়ালেট বা মানিব্যাগও প্রভাব ফেলে আপনার অর্থভাগ্যে। কারণ, ওয়ালেট হল সেই বস্তু, যা সম্পদকে আক্ষরিক অর্থেই ধারণ করে। সুতরাং, পার্স বা ওয়ালেট কেনার সময়ে সতর্ক থাকাটা একান্তভাবেই প্রয়োজন। জেনে নিন কী বলছে ফেং শুই ওয়ালেট বা মানিব্যাগের রং সম্পর্কে।  

• ফেং শুই মতে, সোনালি, হলুদ, গোলাপি, সাদা, কালো— এই রংগুলির মধ্যে ইতিবাচক শক্তিকে আকর্ষণের প্রবল ক্ষমতা রয়েছে। এই সব রংয়ের ওয়ালেট সৌভাগ্য এনে দেয়।

• যারা দ্রুত অর্থলাভ করতে চান, অর্থোপার্জনে ঝুঁকি নিতে পিছপা হন না, তারা যেন ভুলেও সোনালি রংয়ের পার্স ব্যবহার না করেন। মনে রাখতে হবে, পুরো পার্সটির রং সোনালি না হয়ে যদি আংশিক সোনালিও হয়, তা হলেও এই পার্স থেকে দূরে থাকতে হবে চটজলদি আর্থিক সাফল্যের সন্ধানীদের। তবে ধৈর্যশীলদের ক্ষেত্রে এই রংই সৌভাগ্যকে সূচিত করে।

• গোলাপি রংয়ের পার্স মহিলাদের ক্ষেত্রে সৌভাগ্য এনে দেয়। গোলাপি রংটির সঙ্গে সম্পদবৃদ্ধির সংযোগ রয়েছে।

• হলুদ পার্স অর্থভাগ্যে ঔজ্জ্বল্য এনে দেয়। চকচকে হলুদ পার্স এমন ক্ষেত্রে দ্রুত ফল দেয়। যদি তা না পাওয়া যায়, সাধারণ হলুদ রংও কাজে আসে।

• কালো পার্স সব থেকে কমন। ফেং শুই মতে, কালো রংটি অত্যন্ত শক্তিশালী। অর্থ সঞ্চয়কে এই রং নিশ্চিত করে। একথাও বলে ফেং শুই, যদি কেউ অর্থসংকটে পড়েন, তিনি যেন তৎক্ষণাৎ কালো ওয়ালেট ব্যবহার শুরু করেন।

• লাল ও নীল পার্স সম্পর্কে ফেং শুই সাবধানবাণী শোনায়। এমন রংয়ের ওয়ালেট বা পার্স নেগেটিভ এনার্জি নিয়ে আসে। লাল রং ‘আগুন’-এর প্রতীক। তা বহু কিছুর অস্তিত্বকেই ধ্বংস করে দেয়। সৌভাগ্যকেও লাল রং ধ্বংস করে। আর নীল রং ‘জল’-এর প্রতীক। এই রংও লালের মতো বিপজ্জনক। সৌভাগ্যকে ডোবাতে নীল রংয়ের জুড়ি নেই।
সূত্র : এবেলা


বিডি প্রতিদিন/১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/ফারজানা

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow