Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১১ অক্টোবর, ২০১৬ ১৩:১১
প্রসবের আগে যে তথ্যগুলো মাকে জানানো হয় না
অনলাইন ডেস্ক
প্রসবের আগে যে তথ্যগুলো মাকে জানানো হয় না

গর্ভধারণের পর থেকেই একজন নারীকে নানারকম শারীরিক ও মানসিক সমস্যার ভেতর দিয়ে যেতে হয়। বিশেষ করে মানসিক চাপে ভোগেন তারা।

আর তাই এরকম সময়ে চিকিৎসকরা কিছু কিছু বিষয় হবু মায়ের কাছ থেকে গোপন করেন। এগুলো হলো: 

- প্রসবের অাগে মায়েরা খুব মানসিক চাপে থাকেন এই ভেবে যে তাকে হয়তো যথেষ্ট শক্তিতে শিশুটিকে ঠেলে দিতে হবে (পুশ করা)। আর এই ধাক্কাতেই শিশুটি বেরিয়ে আসে বলে জানেন সবাই। কিন্তু আসলে বিষয়টা কি তা? ঘটনাটি প্রকৃতিগতভাবেই ঘটে। শিশুটিকে বের করে দিতে জরায়ু সঙ্কুচিত হতে থাকে। এটি এমনিতেই শিশুটিকে ধাক্কা দিতে থাকে। এসময় শিশুর মস্তিষ্কে সংকেত যায়, তখন সে নিজেও বেরিয়ে আসতে চায়।  

- অনেক নারীই মনে করেন প্রসবের আগে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। প্রসবের জন্য হাত-পা থেকে শুরু করে শরীরের প্রতিটি অঙ্গ পরিষ্কার করেন তারা। অথচ মা গোসল করেছেন কিনা সেটা নিয়েও চিকিৎসকের মধ্যে কোনো চিন্তা থাকে না। ইন্ডিয়ানা ইউনিভার্সিটি হেলথ এর ওবি/জিওয়াইএন বিশেষজ্ঞ ড. কেলি ক্যাসপার জানান, সন্তান জন্মদানের জন্য এগুলোর প্রয়োজন নেই।  

- মাকে বলা হয় জন্মদানের সময় ক্ষুধার্ত থাকলে তিনি ইচ্ছা করলেই খেতে পারবেন। কিন্তু প্রকৃতপক্ষে হাসপাতালে নেওয়ার পর আর খেতে দেওয়া হয় না।

- মায়ের ভয় বা টেনশনের কারণে বমি বা টয়লেটও হতে পারে। শিশুকে ধাক্কা দেওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটতেই পারে। এটা অস্বস্তিকর ঘটনা ঘটতেই পারে।

- হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে গর্ভের শিশুকে ধাক্কা দিতে হবে, এমনটা ভাবা ভুল। বরং আপনি যদি পেছনে দুই হাতের ভরে বসে থাকেন, তবে মাধ্যাকর্ষণ শক্তি আপনার শিশুটিকে টেনে বের করতে সহায়তা করবে।


 

বিডি-প্রতিদিন/ ১১ অক্টোবর, ২০১৬/ আফরোজ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow