Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

শিরোনাম

প্রকাশ : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০১:৩৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০৪:৪৭
সম্পর্ক ভালো রাখবে 'দূরত্ব'!
অনলাইন ডেস্ক
সম্পর্ক ভালো রাখবে 'দূরত্ব'!

ভালোবাসা এক জিনিস আর দূরত্ব বজায় না রাখা আরেক জিনিস। এই দুটো বিষয়ই একেবারে ভিন্ন।

প্রেমের সম্পর্কে ভালোবাসা, জোরজবরদস্তিও সবকিছুই থাকতে পারে। আপনি আপনার সঙ্গীকে ভালোবাসবেন এটাই স্বাভাবিক বিষয়। কিন্তু আপনি যতই ভালোবাসুন না কেন, আপনাকে আপনার সঙ্গীর সঙ্গে আপনার ন্যূনতম দূরত্ব বজায় রাখা দরকার।  

আর এর কারণ হল সঙ্গীর সঙ্গে খুব বেশি জড়িয়ে গেলে সেখানে আপনি তার সঙ্গে অনধিকারচর্চা শুরু করে দিতে পারেন। কাজেই আপনাকে অবশ্যই বুঝে নিতে হবে সঙ্গীর সঙ্গে আপনার ন্যূনতম দূরত্ব আছে কি না। আর সেটা বোঝার জন্য আমাদের আজকের প্রতিবেদনে দেয়া তালিকাটির সঙ্গে একবার মিলিয়ে নিতে পারেন-

১। আপনি যখন কাউকে ভালোবাসবেন তখন সেই মানুষটির প্রতি আপনার শুধু ইতিবাচক অনুভূতি থাকবে। কিন্তু খেয়াল রাখবেন ব্যক্তি স্বাতন্ত্রে যেন ফাঁক থাকে। যদি না থাকে তাহলে সেখানে শঙ্কা, রাগ ও নিরাপত্তাহীনতা কাজ করবে।

২। ভালোবাসা নিঃস্বার্থ হয়, অন্যদিকে ঘনিষ্ঠতা বেশি থাকলে সঙ্গীকে জোর করে নিজের কাছে ধরে  রাখার ইচ্ছে হবে আপনার।   

৩। ভালোবাসা ক্ষমাশীল হয় এবং একে অন্যকে সাহায্য করার প্রবল ইচ্ছে থাকে। কিন্তু আপনি যদি সঙ্গীর অতিরিক্ত ঘনিষ্ঠ হন তাহলে আপনি চাইবেন সঙ্গী যেন সবসময় আপনার দেওয়া সীমারেখার এক ইঞ্চিও বাইরে না যায়।  

৪। ভালোবাসা স্বাধীনতা দেয় আর অতিরিক্ত ঘনিষ্ঠতা মানে অতিরিক্ত অধিকার খাটানোর চেষ্টা। এমনকি আপনার সঙ্গী যদি বন্ধুদের সঙ্গেও সময় কাটাতে চায় সেখানেও আপনার আপত্তি তৈরি হয়। এর মানে সঙ্গী আপনার কাছে পরাধীন।

৫। ভালোবাসার কারণে মানুষ তার সঙ্গীর জন্য সবকিছু করতে পারে। আর যেখানে সম্পর্কে ফাঁক থাকে না, সঙ্গী উপস্থিত থাকলেই শুধু আপনার অস্থিরতা কাজ করবে।  

৬। সবচেয়ে বড় কথা সম্পর্কে যদি একটু ছাড় না থাকে তো সেই সম্পর্ক দমবন্ধ হয়ে যায়।

 

বিডি-প্রতিদিন/ ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/ আব্দুল্লাহ সিফাত-৪

আপনার মন্তব্য

up-arrow