Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২৩ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : ৫ মার্চ, ২০১৭ ১৪:২১ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
স্বাস্থ্যকর লাঞ্চের কিছু সহজ কৌশল
অনলাইন ডেস্ক
স্বাস্থ্যকর লাঞ্চের কিছু সহজ কৌশল

সকাল থেকে কাজ করে ক্লান্ত শরীরকে পুনরায় কাজের জন্য উজ্জীবিত করে দুপুরের খাবার। সকালের ব্রেকফাস্টের গুরুত্ব নিয়ে অনেক গবেষণা ও প্রবন্ধ রচনা হয়েছে কিন্তু দুপুরের খাবারও অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

তাই দুপুরে বাসায় বা অফিসে এমন খাদ্য গ্রহন করুন যা খেলে আপনার ক্ষুধা কমবে, কর্ম স্পৃহা বৃদ্ধি পাবে কিন্তু মেদ বৃদ্ধি হবেনা।  

জেনে নেই স্বাস্থ্যকর লাঞ্চের জন্য কিছু সহজ কৌশল।

১। চর্বিহীন প্রোটিন
লাঞ্চে প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার রাখুন, এটা ২ ভাবে কাজ করবে। প্রথমত প্রোটিন খেতে ও হজম হতে সময় লাগে তাই এটা অনেকক্ষণ পেট ভরা থাকতে সাহায্য করে। দ্বিতীয়ত প্রোটিন বিপাক ক্রিয়ায় সহায়তাকারি মাংস পেশীর গঠন ও বৃদ্ধিতে প্রধান ভূমিকা রাখে। সুতরাং শরীরের ক্যালোরি পোড়ানোর জন্য আপনার লাঞ্চে পর্যাপ্ত প্রোটিন (মাছ,মাংস,ডিম,শিম,বাদাম ইত্যাদি) রাখুন।

২। ক্ষুধা নিবারণকারী ফাইবার
ডায়েট ফ্রেন্ডলি এনার্জির জন্য উচ্চ মাত্রার ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার প্রয়োজন।

প্রোটিনের মত ফাইবার সমৃদ্ধ খাবারও হজম হতে সময় লাগে। তাই ফাইবারও অনেকক্ষণ যাবত পেট ভরা রাখবে। তাই দুপুরের খাবারে প্রচুর ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার (হোল গ্রেইন, ফল, শাকসবজি, বাদাম ইত্যাদি) রাখুন যাতে ক্ষুধা নিবারণ হয় ও আপনাকে তৃপ্তি দেয়। যার ফলে খুব তাড়াতাড়ি ক্ষুধা লাগবেনা এবং আপনাকে দিনের শেষে জাঙ্ক ফুড খেতে অনুপ্রাণিত করবেনা।

৩। স্বাস্থ্যকর পানীয়
দুপুরে চিনি ও ক্যাফেইন সমৃদ্ধ পানীয় পান করা ঠিক নয়। কারণ এই প্রকার পানীয় খুব অল্প সময়ের জন্য আপনার এনার্জি বৃদ্ধি করলেও দেহকে পানিশূন্য করে ও দিনের শেষে এনার্জিও নষ্ট করে। এই সকল পানীয়ের পরিবর্তে নরমাল পানি পান করুন।

৪। হেলদি ফ্যাট
স্বাস্থ্যকর ফ্যাট যেমন- বাদাম, বীজ ও তেল ইত্যাদি ও পাকস্থলীতে আস্তে আস্তে কাজ করে ফলে পেট ভরা থাকে। হেলদি ফ্যাট শরীরে এনার্জি সরবরাহ করে, ব্লাড সুগার বৃদ্ধি করে এবং আস্তে আস্তে প্রবাহিত করে, যা শরীর ও ব্রেইনের জন্য ভালো।

এছাড়া, আরও কিছু টিপস আছে কার্যকারি লাঞ্চের জন্য

– লাঞ্চ এর সময় অনেক বেশি খাওয়া ঠিক নয়, আবার একেবারে কম খাওয়া ও ঠিক নয়। ৪০০ ক্যালোরি বা তার কিছুটা কম ক্যালোরি সমৃদ্ধ খাবার গ্রহন করুন।
– কখনোই দুপুরের খাবার বাদ দেবেন না। একেবারে কিছু না খাওয়ার চেয়ে কম খাওয়া ভালো।
– আপনার লাঞ্চ বাসা থেকেই তৈরি করে নিন। রাতের খাবারের পরই আপনার পরবর্তী দিনের লাঞ্চের ব্যাবস্থা করে ফেলুন।
– অফিসে আপনার ডেস্কে বসে লাঞ্চ করবেন না।
– লাঞ্চে সালাদ ও ফল রাখুন।
– ডোনাট,কুকিজ,ক্যান্ডি,ফ্রেঞ্চ ফ্রাই,চিপস ইত্যাদি দুপুরে খাবেন না।
– লাঞ্চের জন্য সঠিক খাদ্য নির্বাচন করে আপনার শরীর ও মস্তিষ্ককে অধিক কর্মক্ষম করে তুলুন।

আপনার মন্তব্য

up-arrow