Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, রবিবার, ১৯ নভেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : ১৮ মার্চ, ২০১৭ ২২:০৬ অনলাইন ভার্সন
জীবনকে আরো উপভোগ করতে যা করবেন
অনলাইন ডেস্ক
জীবনকে আরো উপভোগ করতে যা করবেন

আপনার জীবনকে আরো উপভোগ করতেই কিছু অভ্যাস ত্যাগ করুন। ধূমপান কিংবা স্মার্টফোনের মতো কিছু অভ্যাস থেকে কয়েক সপ্তাহ দূরে থাকা জরুরি।

জরুরি উপোস থাকাও। এ কাজগুলো কেন এবং কীভাবে করবেন জেনে নিন।

ধূমপান থেকে দূরে থাকুন
বিশেজ্ঞরা বলেন, যদি কয়েকজন মিলে একসাথে ধূমপান ছাড়ার লক্ষ্য স্থির করেন, তবে কাজটা অনের সহজ হবে। আর এর সেজন্য চাই কোনো একটা বিশেষ কারণ বা উপলক্ষ্য কিংবা জোড়ালো কোনো অনুভূতি।

অধিক সেক্স নয়
বিশেষজ্ঞদের মতে, কিছুদিনের জন্য সঙ্গম করা থেকে বিরত থাকলে, পরবর্তীতে আনন্দের মাত্রা নাকি দ্বিগুণ বেড়ে যায়। তাই তিন বা চার সপ্তাহ সেক্স থেকে দূরে থাকুন।

যন্ত্রটি ‘অফ’ করে সড়ে পড়ুন
আজকাল প্রায় সকলেরই সার্বক্ষণিক সঙ্গী ‘স্মার্টফোন’৷ অনেকেরই এমন একটা ভাব, যেন ‘যন্ত্রটি’ বন্ধ করলেই সকলের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাবেন তিনি! আসলে এতকিছু না ভেবে হাতের যন্ত্রটি বন্ধ করে দিন৷ দেখবেন, স্মার্টফোন বা ট্যাবলেটের সাথে এই ‘সাময়িক বিচ্ছেদ’-এর ফলে আপনি মানসিকভাবে অনেকটা হালকা বোধ করছেন!

খাবারে পরিবর্তন
বিশেষজ্ঞরাও আজকাল স্বাস্থ্যগত কারণে মদ, ধূমপান, মিষ্টি, চর্বি বা অতিরিক্ত খাওয়া থেকে কিছু দিনের জন্য বিরত থাকার কথা বলেন। বলেন প্রচুর শাক-সবজি, ফল এবং কফির জায়গায় ‘হার্বাল টি’ বা চা পানের কথাও। খাবারের ব্যাপারে প্রতিটি মানুষেরই ব্যক্তিগত কিছু পছন্দ থাকে, যা থেকে তাঁরা দূরে থাকতে পারেন না।

আসলে কিন্তু পছন্দের খাবারকে ‘না’ বলাই হলো সত্যিকারের উপোস বা ত্যাগ।

চকলেট বা মিষ্টি
চকলেট (বানানভেদে চকোলেট) বা মিষ্টিজাতীয় খাবার সুখ হরমোনকে সক্রিয় করে তোলে৷ তাই উপোসের কয়েক সপ্তাহ চকলেটকে ‘না’ বলুন। পরে অবশ্য এর ফলাফল দেখে নিজেই অবাক হয়ে যাবেন।

কফি-ইন
সকালে কফির সুগন্ধে যাঁর ঘুম ভাঙে, তাঁর কি কফি না হলে চলে? অবশ্যই চলবে, তবে এর জন্য প্রয়োজন অসম্ভব মনের জোর৷ গরম কিছু চাই তো? বেশ তো, কফির বদলে চা পান করুন৷ পরপর দু-তিনদিন চা পান করলেই দেখবেন কফির আগ্রহ কমে যাবে৷ এ সব শুধু কথার কথা নয়...৷ তাই নিজেই পরীক্ষা করে দেখুন না!

চেয়ার ছেড়ে উঠে দাঁড়ান
গাড়ি ছেড়ে খানিকটা হাঁটুন, পারলে সাইকেল চালান। এতে যেমন পরিবেশ রক্ষা হবে, তেমন রক্ষা করা হবে নিজের স্বাস্থ্যও। শুধু তাই-ই নয়, কিছুদিন করার পর হয়ত এর মধ্যে আনন্দও পেতে শুরু করবেন আপনি।

আপনি কি সুখী?
বিশেষজ্ঞদের মতে, জোর করে উপোস করলে ফল হতে পারে উল্টো। তাই যিনি নিজের আগ্রহে ও আনন্দের সঙ্গে উপোসের সিদ্ধান্ত নেন বা কোনোকিছু থেকে নিজেকে বিরত রাখেন, একমাত্র তিনিই লাভবান হতে পারেন। সূত্র: ইন্টারনেট।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

 

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow