Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭

ঢাকা, সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
প্রকাশ : ১৯ মে, ২০১৭ ১৪:৪৬ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
ভুলেও ফেলে দেবেন না কাঁঠালের বীজ!
অনলাইন ডেস্ক
ভুলেও ফেলে দেবেন না কাঁঠালের বীজ!

শুরু হয়েছে মধু মাস। ইতোমধ্যে আম, লিচুর সঙ্গে বাজারে দেখা মিলছে কাঁঠাল।

এখনও খুব ভালো বা মিষ্টি না হলেও, বাঙালি ইতোমধ্যে কাঁঠালকে ঘরে তোলা শুরু করে দিয়েছে। প্রোটিন, ভিটামিন ও পটাসিয়াম সমৃদ্ধ অত্যন্ত পুষ্টিকর এই ফল গরমে শরীর সুস্থ রাখার পক্ষে একেবারে আদর্শ। অনেকের কাঁঠাল সম্পর্কে ভুল ধারণা থাকায় তারা ফলটিকে এড়িয়ে চলেন। বলেন, এই গরমে কাঁঠাল খেলে অসুস্থ হয়ে পড়বেন। কিন্তু, মনে রাখা দরকার কাঁঠাল কিন্তু গরমেরই ফল।  সুতরাং, এটা খেতে হলে গরমেই খেতে হবে। আর প্রকৃতিতে বিভিন্ন মৌসুমে আলাদা আলাদা ফল হওয়ার কারণ হলো- ওই মৌসুমের রোগ-ব্যাধি থেকে প্রাণিকুলকে দূরে রাখা। অর্থাৎ, কেউ যদি নিয়মিত মৌসুমি ফলগুলো খায়, তাহলে অধিকাংশ মৌসুমি রোগ তার থেকে দূরে থাকবে। তবে এ তো গেল কাঁঠালের কথা। কিন্তু কাঁঠালের বীজ কি ফেলে দেবেন? অনেকে রান্না করে বা ভাজি করে কাঁঠালের বীজ খান। অনেকে আবার হজমের সমস্যা হবে মনে করে ফেলে দেন। তবে  কাঁঠালের বীজের উপকারিতা জানলে আর কোনওদিন সেটিকে ফেলে দেওয়ার কথা মাথাতেও হয়তো আনবেন না।

১.বলিরেখা দূর করে

ত্বকে বলিরেখা থেকে নিষ্কৃতি দিতে ম্যাজিকের মতো কাজ করে কাঁঠালের বীজ। একটি বীজ কোল্ড ক্রিমের সঙ্গে গ্রাইন্ড করে পেস্ট তৈরি করুন। তারপর সেটি নিয়মিত ত্বকে অ্যাপ্লাই করুন। বলিরেখা বাপ বাপ বলে পালাবে। কাঁঠালের বীজ আপনার ত্বককে করে তুলবে সজীব ও তরতাজা। দু-একটি বীজ সামান্য দুধ ও মধুতে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রেখে, সেটা দিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন। সেই পেস্ট সারা মুখে লাগিয়ে শুকোতে দিন। তারপর উষ্ণ গরম জলে মুখটা ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন, ত্বকের ঔজ্জ্ল্য বেড়ে দ্বিগুণ হয়ে যাবে।

২.মানসিক চাপ কমায়, ত্বকের রোগ সারায়

কাঁঠালের বীজ প্রোটিন ও মাইক্রোনিউট্রিয়েন্টসে ঠাঁসা। সেজন্যই এটি মেন্টাল স্ট্রেস কমাতে বিশেষ কার্যকরী। এটি ত্বকের নানা রোগও সারায়। ত্বকে ময়েশ্চারের মাত্রা বেশি রাখতে ও স্বাস্থ্যকর চুল পেতে নিয়মিত কাঁঠালের বীজ খাওয়া ভালো।

৩.অ্যানিমিয়ার শত্রু

রোজ মেনুতে কাঁঠালের বীজ রাখলে আপনার শরীরের আয়রনের মাত্রা বাড়বে। এই বীজে প্রচুর পরিমাণে আয়রন থাকে। কাঁঠালের বীজ হিমোগ্লোবিনের একটি উপাদান। ফলে এটি খেলে অ্যানিমিয়া দূরে হবে। আয়রন সুস্থ রাখবে আপনার মস্তিষ্ক ও হার্টকেও।

৪.স্বাস্থ্যকর চুল ও ভালো দৃষ্টিশক্তি

কাঁঠালের বীজে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ থাকে। চোখের স্বাস্থ্যের জন্য এই ভিটামিন অত্যন্ত প্রয়োজনীয়। এটি রাতকানা কাটাতেও সাহায্য করে। শুখু চোখ নয়, চুলের স্বাস্থ্যও ভালো রাখে ভিটামিন এ। চুলের আগা ফেটে যাওয়া রোধ করে এই ভিটামিন।

৫.হজমশক্তি বাড়ায়

বদহজম রোধে খুবই কার্যকরী কাঁঠালের বীজ। এটি রোদে শুকিয়ে গ্রাইন্ড করে পাউডারের মতো করে ফেলুন। বদহজমে সহজ হোমমেড রেমেডি হতে পারে এই পাউডার। এতকিছু না করে শুধু কাঁঠালের বীজ খেলে কমবে কনস্টিপেশনের সমস্যা। কারণ কাঁঠালের পাশাপাশি এর বীজেও প্রচুর ফাইবার থাকে। সূত্র: এইসময়।


বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

up-arrow