Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুলাই, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ জুলাই, ২০১৭
প্রকাশ : ৬ জুলাই, ২০১৬ ১০:১৪ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ৬ জুলাই, ২০১৬ ১৬:০২
গাড়িতে কন্যা, স্যুটকেসে স্ত্রীর কাটা দেহ!
অনলাইন ডেস্ক
গাড়িতে কন্যা, স্যুটকেসে স্ত্রীর কাটা দেহ!
প্রতীকী ছবি

পাঁচ বছরের কন্যা সন্তানকে গাড়িতে বসিয়ে রেখে স্ত্রীয়ের টুকরো টুকরো দেহ পোড়ানোর চেষ্টা করল ভারতের হায়দরাবাদের এক ব্যক্তি। যদিও স্থানীয় লোকজনের তৎপরতায় তাকে হাতেনাতে ধরে ফেলে পুলিশ।

পেশায় শেয়ার ব্যবসায়ী বছর ছত্রিশের রূপেশ কুমার মোহনানি হায়দরাবাদের গাচিবোলি এলাকার বাসিন্দা। আট বছর আগে তিনি কঙ্গোর নাগরিক তথা পেশায় ‘ক্লাব ডান্সার’ সিন্থিয়া ভেচেলকে বিয়ে করেছিলেন। এরপর ২০১২ সালে স্ত্রী এবং কন্যাকে নিয়ে ভারতে চলে আসেন রূপেশ। পুলিশ জানিয়েছে, গত কয়েকমাস ধরে তার পরিবার আর্থিক সমস্যার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছিল।
 
এছাড়া, সম্প্রতি ফেসবুকের মাধ্যমে আলাপ হওয়া এক ব্যক্তির সঙ্গে সিন্থিয়া ঘনিষ্ঠ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন বলে সন্দেহ হয়েছিল রূপেশের। এই সব নিয়ে প্রায়ই ওই দম্পতির মধ্যে ঝগড়া হতো। কিন্তু গত সোমবার সেই ঝগড়া চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছয়।
 
ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (শামশাবাদ এলাকা) সুনপ্রীত সিংহ জানান, ওই দিন বাদানুবাদের মাঝেই রাত ৩টার দিকে শ্বাসরোধে স্ত্রীকে খুন করে রূপেশ। সারারাত ওই ভাবেই স্ত্রীয়ের মৃতদেহ রেখে দেয়। মঙ্গলবার সকালে মেয়েকে স্কুলে দিয়ে আসার পর দু’টি ছুরি এবং একটি কুঠার দিয়ে সিন্থিয়ার দেহ টুকরো টুকরো করে কাটেন তিনি। এরপর দেহাংশগুলো একটি স্যুটকেস এবং একটি ব্যাগে ভরে রূপেশ। মেয়ে স্কুল থেকে ফেরার পর তাকে নিয়ে সন্ধ্যার দিকে গাড়িতে বেরিয়ে পড়েন তিনি। গাড়িতে তুলে নিয়েছিল সেই স্যুটকেস এবং ব্যাগটি। তারপর শহরের বাইরে মদনপল্লি এলাকায় নিরব জায়গা দেখে ব্যাগ এবং স্যুটকেসটি বার করে এবং পেট্রোল ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেন রূপেশ।
 
তবে ঝোপ থেকে ধোঁয়া উঠতে দেখে এবং কটু গন্ধের ঠেলায় এলাকার বাসিন্দারা পুলিশে খবর দেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে রূপেশ পালানোর চেষ্টা করে। তবে তার গাড়ির চাকা কাদায় আটকে যাওয়ায় পুলিশ তাকে ধরে ফেলে।

বিডি-প্রতিদিন/৬ জুলাই, ২০১৬/মাহবু্ব

আপনার মন্তব্য

up-arrow