Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ১২ অক্টোবর, ২০১৬ ০৩:৫১
১৭ বছরের এক মেয়ের কাছে ধরাশয়ী ৬ ফুটের পুরুষ কুস্তিগীর
অনলাইন ডেস্ক
১৭ বছরের এক মেয়ের কাছে ধরাশয়ী ৬ ফুটের পুরুষ কুস্তিগীর

সুলতান ছবির আফ্রার মতই বাস্তবে এখন নিজের বীরত্বের কথা লিখেছে নেহা তোমর নামের ১৭ বছরের এক কিশোরী। সালমান খানের ‘সুলতান’ ছবিতে আফ্রা ছিলেন একজন নারী কুস্তিগীর। যিনি একের পর এক পুরুষ কুস্তিগীরদের মাটিতে ফেলে দিয়েছিলেন। আফ্রা'র এই কীর্তি দেখে চারিদিকে প্রসংশার ঝড় উঠেছিল। এই আফ্রা'র ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন আনুষ্কা শর্মা।

 এবার বাস্তবের মাটিতেই দেখা মিলল এমনই এক আফ্রা'র। আর তার নাম নেহা তোমর। বাড়ি দেহরাদুনের ধাকরানি গ্রামে। কয়েক বছর ধরেই স্থানীয় সব প্রতিযোগিতায় একের পরে এক পুরুষ কুস্তিগীরকে মাত দিয়েছে নেহা। কিন্তু এবার নতুন করে নেহা যা করলেন তাতে তার কীর্তি চারিদিকে ছড়িয়ে পড়েছে।
 
বারেলিতে এবার এক কুস্তি প্রতিযোগিতায় সমস্ত পুরুষ কুস্তিগীরকেই চ্যালেঞ্জ জানায় বছর ১৭ বছরের নেহা। ২০১৪ সালে এই প্রতিযোগিতাতেই নেহা এক পুরুষ কুস্তিগীরকে পরাজিত করেছিল। এবার প্রতিযোগিতায় নেমে ‘ওপেন চ্যালেঞ্জ’ ছুঁড়ে দেয় নেহা।  

কিন্তু কেউই নেহার চ্যালেঞ্জ নিতে রাজি হয়নি। নবাব নামে এক পুরুষ কুস্তিগীর নেহার চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেন। কিন্তু নবাব নেহার সামনে দাড়াতেই পারে না।  মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই প্রায় ৬ ফুট লম্বা নবাবকে ধরাশয়ী করে দেয় ৫ ফুট উচ্চতার নেহা।  

১৯৭২ সাল থেকে শুরু হওয়া বারেলির এই কুস্তি প্রতিযোগিতা শুরু হয়। তবে এই কুস্তি প্রতিযোগিতায় মহিলা কুস্তিগীরদেরকে অংশগ্রহণ শুরু ১২ বছর আগে। ২০১৪ সালেই প্রথম নেহার সঙ্গে পুরুষ কুস্তিগীরের লড়াই হয়। এবার ছিল এই চ্যালেঞ্জের দ্বিতীয়বার।  এই জয়ের পরে অবশ্য থেমে থাকতে চায় না সতের বছরের নেহা। সে আবারও পুরুষ কুস্তিগীরদের চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছে। হারুন নামে দিল্লির এক কুস্তিগীর এই চ্যালেঞ্জ গ্রহণও করে।  

চাষির মেয়ে নেহার ইচ্ছে কুস্তিতে দেশের হয়ে অলিম্পিক থেকে পদক আনা। তার আদর্শ সদ্য অলিম্পক্স থেকে পদক জিতে আসা সাক্ষী মালিক। ‘সুলতান’ অব দ্য রিং বলেও নেহাকে এখন অনেকে ডাকছেন।  


বিডি-প্রতিদিন/১২ অক্টোবর, ২০১৬/তাফসীর

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow