Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : ১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০৬:৫৩
আপডেট : ১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ১৩:০৮
শত বছর ধরে যে গ্রামে গান শেখা বাধ্যতামূলক!
অনলাইন ডেস্ক
শত বছর ধরে যে গ্রামে গান শেখা বাধ্যতামূলক!
ছবি: সংগৃহীত

ভারতের পঞ্জাবের অন্য গ্রামগুলোর মতই এই গ্রাম। মাঠের পর মাঠ জুড়ে গম ক্ষেত। কেউ চাষ করে, কারও আছে দোকান। কিন্তু ‘ভাইনি সাহিব’ নামের সেই গ্রামের চিত্রটা এক জায়গাতেই সবার থেকে আলাদা। এ গ্রামে সবাই গান জানেন।  

গ্রামের সব ছেলে মেয়েকে শেখানো হয় ভারতীয় ধ্রুপদী সঙ্গীত। বড় হয়ে যাই হোক না কেন, এ গ্রামের কৃষক, দোকানদার, গৃহবধূ সবাইকেই গান শিখতে হবে। যেন দৈনন্দিন কর্মকান্ডের মতই এরা নিজেদের জীবনের সঙ্গে জড়িয়ে নিয়েছে গান। গত ১০০ বছর ধরেই এই প্রথা চলে আসছে।

এই গ্রামের মানুষ প্রায় সব ধরনের ভারতীয় গান জানেন। তারা জানেন কৃষ্ণ ভজনা, জানেন বর্ষার রাগ। এমনকি গান কিভাবে শুনতে হয়, সেটাও শেখানো হয় তাদের। সারাদিনের পড়াশোনা, খেলাধুলা, কাজকর্ম শেষ হলেই তারা ছুটে যান গানের ঘরে। কেউ টেনে বসেন সেতার, কেউ তবলা, কেউ শরোদ। সঙ্গও দেন একে অপরকে।  

গ্রামের এক বাসিন্দা তথা গুণী গায়ক বলবন্ত সিং নামের একজন বলেন, 'আমরা মনে করি শিশুবয়সে গান শিখলে বড় হয়ে ভালো মানুষ হওয়া সম্ভব। আমাদের মধ্যে কেউ কেউ গানকে পেশা হিসেবে নিয়েছে। এই গ্রামের শিশুরা সবাই সূর্যোদয়ের আগে ঘুম থেকে উঠে গান প্র্যাকটিস করতে বসে। বর্তমানে প্রায় ৫০০ পরিবার বাস করে এই গ্রামে। '


বিডি প্রতিদিন/১৮ অক্টোবর ২০১৬/হিমেল

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow