Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ২১ অক্টোবর, ২০১৬ ১৭:১২
নার্স-ডাক্তারের মাথা ফাটিয়ে উধাও ডেঙ্গু রোগী
অনলাইন ডেস্ক
নার্স-ডাক্তারের মাথা ফাটিয়ে উধাও ডেঙ্গু রোগী

ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি হাসপাতালে এসেছিলেন চিকিৎসা করাতে৷ কিন্তু এখন সেই রোগীর তাণ্ডবে গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে একই হাসপাতালের তিনজন নার্স ও এক ডাক্তারকে৷ বৃহস্পতিবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমান জেলার গড়িয়াহাট থানা এলাকার একটি নার্সিংহোমে৷ ওই নার্সিংহোমের দুই নার্সের মাথা ফেটেছে৷ অত্যন্ত আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের একটি স্নায়ুরোগ চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানে ভর্তি করা হয়েছে৷ এছাড়া একজন রেসিডেন্ট মেডিক্যাল অফিসার ও অন্য এক নার্সের চোটও গুরুতর৷ তবে এখন পর্যন্ত ওই রোগীকে অবশ্য ধরা যায়নি৷ তিনি মানসিক ভাবে অসুস্থ কি না , তা নিয়েও দ্বিধায় আছেন তদন্তকারীরা৷

যুগ্ম কমিশনার (ক্রাইম ) বিশাল গর্গ জানান, 'ওই রোগীর নাম সুবীর সাহা৷ বছর চল্লিশের ওই রোগীর বাড়ি বর্ধমানের মঙ্গলকোটের জাভাগ্রামে৷ সেখানকার পুলিশের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছেন কলকাতা পুলিশের অফিসাররা৷ তাঁর বাড়ির লোকজনের সঙ্গেও যোগাযোগ করা হয়েছে৷ সাম্প্রতিক অতীতে একজন রোগী এ ভাবে কোনও ডাক্তার -নার্সকে মারধর করে মাথা ফাটিয়ে দিয়েছে এ ধরনের ঘটনার কথা আগে দেখা বা শোনা যায়নি। '

পুলিশ সূত্রের খবর হতে জানা যায় , 'জখম যে দু’জন নার্সের অবস্থা অত্যন্ত আশঙ্কাজনক , তারা হলেন মার্গারেট মণ্ডল ও টি ভিক্টোরিয়া৷ তাদের দু’জনের মাথাতেই জোরালো আঘাত লেগেছে বলে চিকিত্সকরা জানিয়েছেন৷ শিপ্রা মণ্ডল নামে একজন নার্স ও দীপক কুমার নামে একজন আরএমও ওই ডেঙ্গু রোগীকে বাধা দিতে গেলে তারাও তার আক্রমের শিকার হন৷ 
তদন্তকারী এক অফিসার জানান , বুধবার রাতে মঙ্গলকোটের বাসিন্দা সুবীরকে নার্সিংহোমে ভর্তি করা হয়৷ রাতে তার বাড়ির লোকজন হাসপাতালে কেউ ছিলেন না৷ হাসপাতালের লোকজন পুলিশকে জানিয়েছেন , এ দিন সকাল সাড়ে ৫টা নাগাদ একজন নার্স তাঁকে দেখতে যান৷ সে সময় নার্সের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে যান সুবীর৷ তিনি তার বেডের পাশে স্যালাইনের বোতল ঝোলানোর রডটি হঠাত খুলে নিয়ে ওই নার্সের উপর আক্রমণ করে বসেন৷ একজন রোগীকে এ ভাবে স্যালাইনের রড হাতে নিয়ে দৌড়ে বেড়াতে দেখে আতঙ্কে চিৎকার করতে শুরু করে দেন তিনি৷ এতে অন্য নার্স ও অন-ডিউটি চিকিৎসকও দৌড়ে চলে আসেন৷

খবর দেওয়া হয় হাসপাতালের বেসরকারি নিরাপত্তারক্ষীদেরও৷ কিন্তু ততক্ষণে প্রলয়কাণ্ড বাঁধিয়ে ফেলেছেন ওই রোগী৷ বেপরোয়া ভাবে রডটি ঘোরানোর সময় মার্গারেট ও ভিক্টোরিয়ার মাথায় গুরুতর আঘাত লাগে৷ রক্তাক্ত অবস্থায় তারা সেখানেই পড়ে যান৷ বাকি ডাক্তার , নার্স ও নিরাপত্তারক্ষীরা তাকে ধরার চেষ্টা করলেও বেগতিক দেখে তারাও তখন সরে পড়ার চেষ্টা করেন৷ হইচইয়ের মধ্যে হাসপাতাল থেকে গা ঢাকা দেন সুবীর৷

 

বিডি-প্রতিদিন/২১ অক্টোবর, ২০১৬/তাফসীর

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow