Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৭ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১২:৪৪ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
১৬ বছর আগের ভ্রুণ থেকেই কোলে এল সন্তান!
অনলাইন ডেস্ক
১৬ বছর আগের ভ্রুণ থেকেই কোলে এল সন্তান!
প্রতীকী ছবি

আইভিএফ পদ্ধতিতে প্রথম মা হয়েছিলেন তিনি। সেই সময় ফ্রিজে রেখে দেওয়া ভ্রুণ থেকেই দীর্ঘ ১৬ বছর পর দ্বিতীয়বার মা হলেন চীনের ৪৬ বছরের এক নারী।

এর আগে, ২০০০ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে চীনের গুয়াংডং প্রদেশের সান ইয়াত-সেন ইউনিভার্সিটি হাসপাতালে প্রথমবার পুত্র সন্তানের জন্ম দেন ওই নারী। এই আইভিএফ(ইনভিট্রোফার্টিলাইজেশন) সাইকেল থেকে ১৮টি ভ্রুণ ফ্রিজ করে রাখা হয়।

গত বছর দ্বিতীয়বার মা হওয়ার জন্য আবার ওই হাসপাতালে যান তিনি। হাসপাতালের রিপ্রোডাকটিভ সেন্টারের ডিরেক্টর জু ইয়ানওয়েন বলেন, যখন উনি ভ্রুণ আনফ্রিজ করার কথা বলেন তখন অনেক রকম জটিলতা তৈরি হয়েছিল। এফইটি(ফ্রোজেন এমব্রিও ট্রান্সফার) পদ্ধতিতে ফ্রোজেন ভ্রুণ গর্ভে স্থাপন করা সহজ কাজ নয়। তার কিছু শারীরিক সমস্যাও ছিল। তবে ধীরে ধীরে সব সমস্যাই কাটিয়ে উঠতে পেরেছি আমরা। দ্বিতীয়বার পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন তিনি। মাও নবজাতক দুজনেই সুস্থ রয়েছেন। খুব শীঘ্রই ওদের ছেড়ে দেওয়া হবে।

২০১৫ সালে চীন সরকার এক সন্তান নীতি তুলে নেওয়ার পর বহু নারীই অ্যাসিসটেড রিপ্রোডাকটিভ টেকনোলজির সাহায্য নিচ্ছেন বলে জানান জু। তিনি বলেন, ‘‘২০১৬ সালে ১,০০০ জন চল্লিশোর্ধ নারী আমাদের কাছে এফইটি-র সাহায্যে মা হওয়ার জন্য আসেন। ’’

শুধু চীন নয়, সারা বিশ্বেই জনপ্রিয় এই পদ্ধতি। কাজের চাপ, ব্যস্ত লাইফস্টাইলের কারণে বেশি বয়সে বিয়ে ও সন্তান ধারণের জটিলতা বাড়ায় ভারতীয় নারীদের মধ্যেও জনপ্রিয় হচ্ছে এই পদ্ধতি। প্রাক্তন ভারতীয় মিস ওয়ার্ল্ড ডায়না হেডেনও মা হয়েছেন এই পদ্ধতির সাহায্যে। আট বছর আগে জমিয়ে রাখা ভ্রুণ থেকে মা হন ৪২ বছরের ডায়না। সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা।
 
বিডি-প্রতিদিন/০৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/মাহবুব

আপনার মন্তব্য

up-arrow