Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • ২ জুন থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকিট বিক্রি শুরু
  • রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বন্য হাতির আক্রমণে ১০ মাসে নিহত ১৩
  • সাতক্ষীরায় যুবলীগ-শ্রমিকদের মধ্যে সংঘর্ষ, আহত ২
  • তাসফিয়া হত্যায় 'তৃতীয় পক্ষের' ইন্ধন নিয়ে সন্দেহ পরিবারের
  • বান্দরবানে পাহাড় ধসে নারীসহ ৫ শ্রমিক নিহত
  • সাভারে কাউন্সিলরের লোকজনের সাথে ছাত্রলীগের সংর্ঘষ-গুলি, আহত ২০
  • কেরালায় নিপা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৯ জনের মৃত্যু
  • নাজিব পরাজয় মেনে নিতে চাননি: আনোয়ার ইব্রাহিম
  • রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া
  • মাদকবিরোধী অভিযান; রাতে ৭ জেলায় 'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত ৯
প্রকাশ : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২০:১২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৪২
ইঁদুরের ভয়ে ঘরছাড়া মা ও সাত সন্তান!
অনলাইন ডেস্ক
ইঁদুরের ভয়ে ঘরছাড়া মা ও সাত সন্তান!

ইঁদুরে শস্য নষ্ট করে, বই কাটে, লেপ-তোষক কেটে গৃহস্থালি জেরবার করে দেয়, জানা আছে। কিন্তু প্রত্যক্ষভাবে আক্রমণ করে মানুষকে ঘরছাড়া করছে ইঁদুরের দল! এই উদাহরণ হামিলিনের বাঁশিওয়ালার রূপকথা ছাড়া অন্য কোথাও দেখা গেছে বলে মনে হয় না।

সম্প্রতি রূপকথার সেই দুঃস্বপ্নকেই দেখলেন ইংল্যান্ডের মার্সেসাইড অঞ্চলের বুটল শহরের বাসিন্দা কার্লা হ্যাজলেট। বুটলের একটি হাউজিংয়ে সাত সন্তানকে নিয়ে থাকেন কার্লা। দু’বছর আগে তিনি তাঁর পরিবার নিয়ে এই হাউজিংয়ে আসেন। কয়েক মাসের মধ্যে লক্ষ করেন, বাড়ির যত্রতত্র পোকামাকড় ঘুরে বেড়াচ্ছে। এখানেই শেষ নয়, কিছুদিনের মধ্যে এখান-ওখান থেকে উঁকি দিতে থাকে রক্তচক্ষু কিছু লোমশ প্রাণী। আকৃতির দিক থেকে তাদের ‘ইঁদুর’ বলে ডাকতেই হয়। কিন্তু, তাদের আকার সাধারণ ইঁদুরের চাইতে ঢের বড়। সবথেকে ছোট সাইজের ইঁদুরেটিই কমপক্ষে ৬ ইঞ্চি দৈর্ঘ্যের!

কিছুদিনের মধ্যে কার্লা লক্ষ করেন, তার তিন বছর বয়সি ছেলেটি প্রায়শই অসুস্থ হয়ে পড়ছে। ওদিকে দানব সাইজের ইঁদুরেরা ক্রমেই ছড়িয়ে পড়তে থাকে সারা অ্যাপার্টমেন্টে। কার্লার সাত সন্তানের একজন বধির এবং একজন অটিজমে আক্রান্ত। দানব ইঁদুরের আক্রমণ ঘটলে তারা সবার আগে বিপদে পড়তে পারে। বিশেষ করে রাতের দিকে বল্গাহীন উল্লাস শুরু হয় ইঁদুর-বাহিনীর। সেই সময়ে বাড়ির কোনও কিছুই যথাযথ রাখা সম্ভব হয় না।
কার্লা শেষ পর্যন্ত দ্বারস্থ হন সেপটন কাউন্সিল মেডিক্যাল হেল্থ-এর। এই সংস্থা হাত লাগিয়েছে ওই অ্যাপার্টমেন্ট থেকে ইঁদুর বিতাড়নে। ততদিন ঘরছাড়া কার্লা ও তাঁর সাত সন্তান। অপেক্ষা করছেন, পুরনো বাড়িতে ফিরে নিরুপদ্রব জীবন কাটানোর। সূত্র: এবেলা।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

 

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow