Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:৪২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:৪৭
অফিসে কর্মীদের স্বস্তি দিতে পুশিবিড়াল নিয়োগ! (ভিডিও)
অনলাইন ডেস্ক
অফিসে কর্মীদের স্বস্তি দিতে পুশিবিড়াল নিয়োগ! (ভিডিও)

অফিসে কর্মীদের কাজের চাপ থেকে একটু স্বস্তি দিতে বা সময়টাকে আনন্দময় করে তুলতে বড় বড় প্রতিষ্ঠানের চেষ্টার অন্ত নেই। কারণ অনুকূল পরিবেশে কর্মীদের উৎপাদনশীলতা সর্বোচ্চ পর্যায়ে পৌঁছে।

অফিস পার্টি, টেলিভিশন দেখার ব্যবস্থা, হালকা খেলাধুলা বা ইয়োগার ব্যবস্থা রয়েছে প্রতিষ্ঠানিই। সম্প্রতি দুবাইভিত্তিক 'পমগ্র্যানেট ইনস্টিটিউট' নামের প্রতিষ্ঠানটির কর্তৃপক্ষ কর্মীদের হাসি-খুশি দেখতে নতুন একটি উদ্যোগ নিয়েছে।  

 

জানা যায়, পমগ্র্যানেট ইনস্টিটিউটে 'সিডি' নামে তিন বছর বয়সী একটি লোমশ বিড়ালকে আনা হয়েছে অফিসে। কর্মীরা বিড়ালটির সঙ্গে আনন্দের সময় কাটাচ্ছেন। সিডি আগে রাস্তায় ঘোরাঘুরি করত। কিন্তু এখন সে একটি অফিস খুঁজে পেয়েছে। কর্মীরাও একে যারপরনাই ভালোবাসেন। দারুণ আদর করেন সবাই। প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও মারিয়াম শিবিবের মাথা থেকে বেরিয়েছে এই অদ্ভুত চিন্তা। অবশ্য মোটেও অদ্ভুত বলা যায় না। কারণ সিডি'কে আনার পর সত্যিকার অর্থেই তার অফিসের কর্মীদের একঘেয়ে সময় বলতে আর কিছু নেই।

অন্যান্য কর্মীদের মতোই অফিসের এখানে-সেখানে যেতে পারে সিডি। সে বরং আরো নির্ভয়ে চলে। কারণ সবাই তাকে দেখলেই আদর করে দেয়। শুয়ে, চোখ বন্ধ করে বা লেজ নাড়িয়ে আদর নেয় সে। টেবিলে বসে কেউ কাজ করছেন, হঠাৎ দেখা গেলো পাশের টেবিলের কার্নিশ বেয়ে চলে এসেছে সিডি। ব্যস, মজা পেয়ে গেলেন সবাই। একটু আদর করে দিলেন। সিডির সঙ্গে একটু সময় কাটালেন। আবার কাজে মনোযোগ দিলেন।

এখানে কর্মরত লুয়ানা লম্বার্ডো লেগেছেন সিডির পিছে। তিনি একে ট্রেনিং দিচ্ছেন। তাকে আরো বেশি নিজেদের করে নিচ্ছেন। নানাভাবে খেলাধুলা করছেন সিডির সঙ্গে। তার প্রশিক্ষণে আরো বেশি চটপটে হয়ে উঠছে সিডি। এক গবেষণায় বলা হয়, কর্মক্ষেত্রে কোনো আদুরে প্রাণী থাকলে কর্মীদের মাঝে পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধি পায়। এর চাক্ষুষ প্রমাণ দিচ্ছে সিডি। তাকে নিয়ে রীতিমতো মেতে রয়েছেন কর্মীরা। সূত্র: খালিজ টাইমস।

বিডি প্রতিদিন/ মজুমদার

আপনার মন্তব্য

up-arrow