Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • চাটাইয়ে মুড়িয়ে প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় সম্মান!
  • কেরানীগঞ্জে বাচ্চু হত্যায় ৩ জনের ফাঁসি, ৭ জনের যাবজ্জীবন
  • ৩ মামলায় জামিন চেয়ে হাইকোর্টে খালেদার আবেদন
  • হালদা নদীর পাড়ের অবৈধ স্থাপনা ভাঙার নির্দেশ
  • আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা
  • কাদেরের বক্তব্যে একতরফা নির্বাচনের ইঙ্গিত: রিজভী
  • কলারোয়া সীমান্তে স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ বাংলাদেশিকে ফেরত দিল বিএসএফ
  • বিএনপি নির্বাচনে না এলেও গণতন্ত্র অব্যাহত থাকবে: কাদের
প্রকাশ : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০২:১৮ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০৮:৩০
নরখাদক ছেলেকে পুলিশে ধরিয়ে দিল মা, অতঃপর...!
অনলাইন ডেস্ক
নরখাদক ছেলেকে পুলিশে ধরিয়ে দিল মা, অতঃপর...!
প্রতীকী ছবি

বছর কুড়ির ছেলেকে খুঁজতে বেরিয়েছিলেন মা। প্রতিবেশীদের জিজ্ঞাসা করে খোঁজ না খেলার মাঠের ধারের একটি পরিত্যক্ত বাড়িতে খুঁজতে গিয়ে প্রায় জ্ঞান হারানোর মতো অবস্থা হয় সেই মা এর। তিনি দেখেন, তার ছেলে নাজিম ৭ বছরের একটি শিশুর দেহ টুকরো-টুকরো করে কেটে তার মাংস খাচ্ছে।

দেরি না করে সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় লোকজনদের মাধ্যমে পুলিশে খবর দেন তিনি। তবে খবর আগুনের মতো ছড়িয়ে পড়ে। স্থানীয়রা একজোট হয়ে নাজিমকে মারতে উদ্যত হয়। এর মধ্যেই পুলিশ পৌঁছে গ্রেফতার করে তাকে। তবে গ্রেফতারির পরেও থানার বাইরে জড়ো করে স্থানীয়রা দাবি জানান, নাজিমকে তাদের হাতে তুলে দিতে হবে।

গত বুধবার এই ঘটনাটি ঘটে ভারতের উত্তরপ্রদেশের আমারিয়া এলাকায়। পুলিশ জানিয়েছে, মহম্মদ মোনিস নামের ওই শিশুটি অন্যান্য বাচ্চাদের সঙ্গে মাঠে খেলছিল। চকোলেট দেওয়ার নাম করে তাকে নাজিম ডেকে নিয়ে যায়। মাঠের পাশের পরিত্যক্ত বাড়িতে নিয়ে গিয়ে তাকে প্রথমে খুন করে। তার পর দেহ টুকরো-টুকরো করে কেটে ফেলে।

বৃহস্পতিবার আদালতে তোলা হলে বিচারক তাকে পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেন। তার বিরুদ্ধে খুন, অপহরণ-সহ একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। আরও একটি ব্যাপার জানিয়েছে পুলিশ। জেরার মুখে এখনও পর্যন্ত একটিও কথা নাজিমের মুখ থেকে বের করা যায়নি। সে বরাবর চুপ করেই থেকেছে। 

সূত্রঃ এই সময়।

 

বিডি-প্রতিদিন/ ২৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭/ আব্দুল্লাহ সিফাত-৬

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow