Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৭

ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৭ অক্টোবর, ২০১৭
প্রকাশ : ১১ মার্চ, ২০১৭ ০৫:০০ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১১ মার্চ, ২০১৭ ১০:৩০
স্বামীর লজ্জাস্থান কেটে দিলেন স্ত্রী
অনলাইন ডেস্ক
স্বামীর লজ্জাস্থান কেটে দিলেন স্ত্রী

বিবাহিত জীবনের দশ বছর কেটে গেছে। অথচ স্ত্রীকে এড়িয়ে যান স্বামী।

হাজার অনুরোধ সত্ত্বেও স্ত্রীর যৌন চাহিদা পূরণ করেননি। উল্টে তার উপর নির্যাতন করতেন। আর তারই মাশুল দিতে হল তাকে। স্বামীর যৌনাঙ্গ কুচি কুচি করে কেটে দিলেন স্ত্রী। এমনই চাঞ্চল্যকর ঘটনা ঘটেছে ভারতের দিল্লির গাজিয়াবাদে।

২০০৬ সালে সাত পাকে বাঁধা পড়েন তারা। গত আট বছর ধরে গাজিয়াবাদেই থাকতেন এই দম্পতি। পুলিশের কাছে জেরায় ৩০ বছরের অভিযুক্ত নারী জানান, দীর্ঘদিন ধরে তার স্বামী তার উপর মানসিক অত্যাচার চালাচ্ছিলেন। শুধু তাই নয়, তার বোনকেও নানাভাবে নির্যাতন করতেন স্বামী।

একাধিকবার স্বামীর কাছে মা হওয়ার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছিলেন তিনি। কিন্তু কোনওবারই যৌন মিলনে রাজি হননি স্বামী। কারণ জানতে চাইলে প্রতিবারই নানা আছিলায় স্ত্রীকে এড়িয়ে যেতেন। অবশেষে সহ্যের সীমা ছাড়িয়ে যায় স্ত্রীর। নিজের মাথা আর ঠিক রাখতে পারেননি। গত বৃহস্পতিবার রান্নাঘরের ছুরি হাতে তুলে নিয়ে স্বামীর যৌনাঙ্গে কোপ বসান। যন্ত্রণায় কাতর দাদার গলার আওয়াজ পেয়ে ছুটে আসেন ভাই। সঙ্গে সঙ্গে তাকে নয়ডার এক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই অস্ত্রোপচার হয় তার।

হাসপাতালের চিকিৎসক ড: সৌরভ গুপ্তা জানান, “ব্যক্তির যৌনাঙ্গ কেটে দেওয়া হয়েছিল। অস্ত্রোপচার সফল হয়েছে। যদিও আশঙ্কাজনক অবস্থাতেই রয়েছেন ব্যক্তি। তবে এ ধরনের অস্ত্রোপচারের পর ফের স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারেন রোগীরা।

বিডি প্রতিদিন/ সালাহ উদ্দীন

আপনার মন্তব্য

up-arrow