Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৬ আগস্ট, ২০১৮ ০৫:৫১ অনলাইন ভার্সন
সোশ্যাল মিডিয়ায় সাড়া ফেলেছে চীনের এক পোষ্যর প্রভুভক্তি!
অনলাইন ডেস্ক
সোশ্যাল মিডিয়ায় সাড়া ফেলেছে চীনের এক পোষ্যর প্রভুভক্তি!

পোষ্যর তালিকার শুরুতে প্রথমে আসে কুকুরের নাম৷ কুকুর কমবেশি ভালবাসেন সকলেই৷ কুকুরের প্রভুভক্তির কথা তো জানেন প্রত্যেকেই৷ নিজের মালিকের জন্য একটি কুকুর যে কী করতে পারে, সেটি আরও একবার দেখা গেল। চীনের এক পোষ্যর প্রভুভক্তির কাহিনী সোশ্যাল মিডিয়ায় সাড়া ফেলে দিয়েছে৷ সবাইকে পিছনে ফেলে সেই কুকুরটির কথাই এখন নেটিজেনদের মুখে মুখে ঘুরছে৷

চীনের ছোট্ট এক শহর ডেকিং৷ সেই শহরের বাসিন্দা এক নারীর পরিবারের সদস্য বলতে একটি সারমেয়৷ কয়েকদিন ধরে অসুস্থ হয়ে ছিলেন তিনি৷ শারীরিক অসুস্থতা নিয়েই নিজের সারমেয়কে নিয়ে রাস্তায় বেড়িয়েছিলেন সেই নারী৷ এরপরেই ঘটল বিপত্তি৷ 

কুকুরকে নিয়ে রাস্তায় বেরিয়ে আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি৷ মাথা ঘুরে রাস্তায় লুটিয়ে পড়েন সেই নারী৷ অজ্ঞান হয়ে পড়েন৷ চোখের সামনে নিজের মালিককে অসুস্থ হয়ে পড়তে দেখে দৌড়াদৌড়ি শুরু করে দেয় সারমেয়টি৷ চিৎকার করে লোকজন জড়ো করে সে৷ আশেপাশের লোকেরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে সেই নারীকে মাটি থেকে তোলার চেষ্টা করেন৷ ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছায় মেডিকেল টিম৷ অসুস্থ সেই নারীকে অ্যাম্বুলেন্সে তোলার তোড়জোড় শুরু হয়৷ নিজের মনিবকে অ্যাম্বুলেন্সে তুলতে দেখে আরও উদগ্রীব হয়ে পড়ে সারমেয়৷ মালিকের জ্ঞান ফেরানোর চেষ্টা করে সেই অবলা প্রাণী৷ 

নিয়ম অনুযায়ী, অ্যাম্বুলেন্সে কোন পোষ্যকেই উঠতে দেওয়া হয় না৷ কিন্তু এক চিকিৎসক জানান, কুকুরটি কিছুতেই মালকিনকে অজ্ঞান অবস্থায় অ্যাম্বুলেন্সে তুলতে দিচ্ছিল না৷ এছাড়া মনিবকে সুস্থ করার জন্য সেই সারমেয়র অক্লান্ত চেষ্টা দেখেও অবাক হয়ে যান মেডিকেল টিমে থাকা প্রত্যেকেই৷ তাই এক প্রকার বাধ্য হয়েই অ্যাম্বুলেন্সে সারমেয়টিকে তোলার সিদ্ধান্ত নেন তারা৷ মহিলার জ্ঞান ফেরাতে কুকুরের এই কীর্তিই এখন নেটদুনিয়ায় ভাইরাল৷

মেডিকেল টিমে থাকা প্রত্যেকের মতো নেটিজেনরাও কুকুরের এমন প্রভুভক্তির প্রশংসা না করে থাকতে পারছেন না৷ প্রাথমিক চিকিৎসার পরই সুস্থ হয়ে যান ওসেই নারী৷ জ্ঞান ফেরার পরই নিজের পোষ্যকে জড়িয়ে ধরেন তিনি৷ চোখের পানিও আর ধরে রাখতে পারেননি তিনি৷       


বিডি প্রতিদিন/আব্দুল্লাহ সিফাত তাফসীর

আপনার মন্তব্য

এই পাতার আরো খবর
up-arrow