Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৮:৪০ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০৮:৪১
যে গ্রামে নেই থানা, কোনো বাড়িতে নেই দরজা!
অনলাইন ডেস্ক
যে গ্রামে নেই থানা, কোনো বাড়িতে নেই দরজা!
ফাইল ছবি

ভারতের মুম্বাইয়ের মহারাষ্ট্রের প্রত্যন্ত একটি গ্রাম। আহমেদনগর থেকে ৩৫ কিমি দূরের সেই গ্রামের ‌নাম শনি শিঙ্গনাপুর। বসবাস করেন প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ। মূলত আখ চাষিদের বাস এই গ্রামে। আর দীর্ঘদিন ধরেই অদ্ভুত এক কারণে খবরের শিরোনামে রয়েছে শনি শিঙ্গনাপুর। কারণ শুনলে যে কেউ অবাক হতে বাধ্য। 

জানা গেছে, এই গ্রামের বাড়িগুলিতে আসলে কোনো দরজা নেই। সবসময় খোলা থাকে বাড়ি। খোলা ঘরেই যেখানে সেখানে পড়ে থাকে টাকা-পয়সা, গহণা। চুরি হয় না। চুরি করবে কে? চোরই যে নেই সেই গ্রামে। তাই থানাও নেই। শুধু বাড়ি নয়, দোকান, বাজার, ব্যাংকের দরজাতেও তালা পড়ে না। আর এর কারণও অদ্ভুত। 

গ্রামের মানুষ মনে করে করেন, এই গ্রামের রক্ষাকর্তা শনি দেবতা। তিনি অলক্ষ্যে সবার ঘর, সম্পদ রক্ষা করেন। সকলেরই অগাধ বিশ্বাস শনি দেবতার উপরে। আর সেই বিশ্বাসের জেরে ভারতের একমাত্র এই গ্রামেই রয়েছে ইউকো ব্যাংকের শাখা, যার কোনো দরজায় তালা লাগানোর ব্যবস্থা নেই। 

এমনকি এই গ্রামের মানুষেরা বলেন, তাদের পূর্বপুরুষেরা তাদের বলে গেছেন দরজায় যেন পাল্লা না লাগানো হয়। সেই নির্দেশ এখনও তারা মেনে চলেন এবং এর জেরে কোন বিপদও হয় না। প্রায় ৩০০ বছর ধরে এই নীতি চলছে মহারাষ্ট্রের এই গ্রামে। তবে নামে গ্রাম হলেও এখন রীতিমতো শহর এই শনি শিঙ্গনাপুর। 

 

বিডি-প্রতিদিন/ আব্দুল্লাহ সিফাত

আপনার মন্তব্য

up-arrow