Bangladesh Pratidin

ঢাকা, সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপডেট : ১ জুন, ২০১৬ ২৩:৪৮
থাইল্যান্ডে বাণিজ্য বৃদ্ধি এবং বাংলাদেশে বিনিয়োগের আশা
নিজস্ব প্রতিবেদক

শেষ হলো থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংককের কুইন সিরিকিট ন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে তিন দিনব্যাপী সিঙ্গেল কান্ট্রি ফেয়ার ‘বাংলাদেশ ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট এক্সপো-২০১৬’। বাংলাদেশের তৈরি ওষুধ, সিরামিক, তৈরি পোশাক, পাটজাত পণ্য, ফার্নিচার, চামড়া এবং চামড়াজাত পণ্য থাইল্যান্ডের বাজারে স্থান করে নেওয়ার নতুন করে সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এ ছাড়া বাংলাদেশের পর্যটন, এনার্জি, টেলিকম সেক্টরে আগ্রহ দেখিয়েছেন থাই বিনিয়োগকারীরা। বাংলাদেশের স্পেশাল ইকোনমিক জোনে বিনিয়োগের সম্ভাবনা যাচাই করার জন্য থাই ব্যবসায়ীরা বাংলাদেশ সফর করবে। দুই দেশের ব্যবসায়ীরা পারস্পরিক যোগাযোগ বৃদ্ধির মাধ্যমে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।

এক্সপোর শেষ দিনে সমাপনী অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশের পররাষ্ট্রবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী  মো. শাহরিয়ার আলম এবং ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী বেগম তারানা হালিম, থাইল্যান্ডের পররাষ্ট্রবিষয়ক বিশেষ দূত চেলার্মপল থানচিট, বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (মহাপরিচালক, ডব্লিটিও সেল) শুভাশীষ বসু, রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর ভাইস চেয়ারম্যান বেগম মাফরুহা সুলতানা, থাইল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত বেগম সাইদা মুনা তাসনিম এবং  মেলায় অংশগ্রহণকারী ব্যবসায়ীদের, পক্ষে শহীদুল ইসলাম। পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ সিঙ্গেল কান্ট্রি ফেয়ারের মাধ্যমে বাংলাদেশের তৈরি পণ্যের সঙ্গে থাইল্যান্ডের ব্যবসায়ীরা পরিচিত হওয়ার সুযোগ পেয়েছেন।




up-arrow