Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ২২ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : ২৫ জুলাই, ২০১৬ ১৯:০২
আপডেট :
অনলাইন জিডি প্রক্রিয়া পেছালো
অনলাইন ডেস্ক
অনলাইন জিডি প্রক্রিয়া পেছালো

পুলিশি সেবার মান আরও বাড়াতে দ্রুততম সময়ের মধ্যে অনলাইনে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) চালুর কথা থাকলেও সহসাই তা চালু হচ্ছে না। ঢাকা মহানগর পুলিশ বলছে, বিষয়টি নিয়ে অনেক পর্যবেক্ষণ, পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজন আছে। অনলাইন জিডি চালু করা গেলেও তা সীমিত অভিযোগের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য থাকবে।

ঢাকা মহানগর পুলিশ জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের 'এটুআই' প্রকল্পের অংশ হিসেবে অনলাইন জিডি চালুর বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন। এখন আলোচনা পর্যালোচনা চলছে। শিঘ্রই অনলাইন জিডি চালু হবে।
 
যদিও এর আগে ডিএমপি জানিয়েছিল, তাৎক্ষণিকভাবে থানায় গিয়ে কেউ জিডি করতে ব্যর্থ হলে অনলাইনেও জিডি করা যাবে। সরাসরি পুলিশ সদর দফতরে ফ্যাক্স ও ই-মেইলও করা যাবে। দেশের বাইরে থেকেও জিডি করা যাবে। ইমেইল ও ফ্যাক্স ব্যবহার করে অভিযোগ জানানো যাবে। www.police.gov.bd সাইটের Citizen help request বিভাগে অনলাইনে জিডি করা যাবে। তবে যিনি জিডি করবেন তার পরিচয় নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে অনলাইন জিডিটি পুরোপুরি কার্যকর না হওয়ায় এখনই এটি চালু করা হচ্ছে না বলে জানা গেছে।  
 
এ ব্যাপারে ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (ক্রাইম) কৃষ্ণপদ রায় জানান,  পুলিশি সেবা মানুষের দোরগড়ায় পৌঁছে দিতে ডিজিটালাইজড প্রক্রিয়া অনুসরণ করা হচ্ছে। এ ক্ষেত্রে অনলাইন জিডি চালু করা সম্ভব হলে আরও বেশি সেবা পাবেন সাধারণ মানুষ।
 
তবে সহসাই অনলাইন জিডি চালু করা সম্ভব হচ্ছে না। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে বিষয়টি পর্যালোচনা চলছে। কিছু প্রতিবন্ধকতা আছে। এসব শেষে অনলাইন জিডি চালু করা হবে।

ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, থানায় যারা আসেন তাদের অধিকাংশরাই মূলত: বিভিন্ন সমস্যায় পড়ে পুলিশি সেবার জন্য আসেন। কিন্তু সেবা নেওয়ার ক্ষেত্রে নানা প্রতিবন্ধকতা, পুলিশি অসহযোগিতা, টাকা নেয়ারও অভিযোগ শোনা যায়। এসব বন্ধে জিডি বুক সরবরাহ করা হচ্ছে। যেখানে আর এসব প্রতিবন্ধকতা থাকবে না।
 
ঢাকা মহানগর পুলিশ প্রধান আরো বলেন, কেউ যদি জিডি স্বহস্তে লিখেও নিয়ে আসে কিংবা কম্পিউটারে টাইপ করে নিয়ে আসেন তাহলেও জিডি হিসেবে অন্তুর্ভূক্ত করা হবে। সেক্ষেত্রে জিডি নম্বর লিখতে হবে।
 
তিনি বলেন, থানায় পুলিশি সেবার জন্য কোনো টাকা লাগে না। এরপরেও যদি পুলিশি সেবার নামে থানার কোনো কর্মকর্তা বা যে কেউ টাকা নেয় আমাকে জানাবেন। প্রমাণ সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিডি-প্রতিদিন/এস আহমেদ

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow