Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : ৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৯:১৩
এমএনটি নির্মূলে সাফল্যের জন্য বাংলাদেশকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্বীকৃতি
অনলাইন ডেস্ক
এমএনটি নির্মূলে সাফল্যের জন্য বাংলাদেশকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্বীকৃতি

মা ও নবজাতকের টিটেনাস (এমএনটি) সংক্রমণ নির্মূলে সাফল্যের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) মর্যাদাপূর্ণ স্বীকৃতি অর্জন করেছে বাংলাদেশ।

শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয় ডব্লিউএইচও’র দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক অফিসে মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে ডব্লিউএইচও বাংলাদেশের প্রতিমন্ত্রীর কাছে এই সনদ হস্তান্তর করা হয়।

ডব্লিউএইচও’র মতে, প্রসবকালীন অপরিচ্ছন্নতা ও নাভিরজ্জুর যত্নের অভাবে মেটারনাল অ্যান্ড নিওনেটাল টিটেনাস (এমএনটি) প্রাণঘাতী হয়ে দাঁড়ায়। এতে মৃত্যুর হারও খুব বেশি। বিশেষ করে এ সময়ই টিটেনাসের বিস্তার ঘটে। তবে যথাযথ চিকিৎসা হলে টিটেনাসের ঝুঁকি থেকে মুক্ত থাকা যায়।

স্বাস্থ্যকর পরিবেশে প্রসব এবং নাভিরজ্জুর যত্ন নেয়া হলে এবং মায়েদের টিটেনাসের ভ্যাকসিন গ্রহণের মাধ্যমে সহজেই এমএনটি প্রতিরোধ করা যায়। এটি সাশ্রয়ী এবং অত্যন্ত কার্যকর।

দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার জন্য ডব্লিউএইচও’র আঞ্চলিক কমিটির ৬৯তম অধিবেশনে যোগদানের জন্য জাহিদ মালেক ৫ সেপ্টেম্বর থেকে কলম্বো সফর করছেন।

এমএনটি প্রতিরোধে সাফল্যের জন্য ডব্লিউএইচও’র সাটিফিকেট গ্রহণের পর স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, ‘এমএনটি নির্মূল আমাদের জন্য একটি বিরাট সাফল্য। ’

জনস্বাস্থ্য নিশ্চিত ও স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়নে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগ তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, সরকার অন্যান্য রোগের কারণে মা ও নবজাতকের মৃত্যু আরো কমিয়ে আনতে প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে।

বিডি-প্রতিদিন/০৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬/এনায়েত করিম

আপনার মন্তব্য

সর্বশেষ খবর
up-arrow