Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : ২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:১৩ অনলাইন ভার্সন
আপডেট :
'প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনে বিশৃঙ্খলা বা অনিয়ম হয় না'
অনলাইন ডেস্ক
'প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচনে বিশৃঙ্খলা বা অনিয়ম হয় না'
ফাইল ছবি

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হলে কোন ধরনের বিশৃঙ্খলা বা অনিয়ম হয় না। আমরা চাই নির্বাচন প্রতিযোগিতামূলক হোক, সবাই অংশ নিক।

আসন্ন কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচন ও সুনামগঞ্জ-২ আসনের উপ-নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে দলগুলোর কাছে সহযোগিতা চেয়েছেন তিনি। একইসঙ্গে তিনি সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য কোনো বাধা আসলে তা কঠোরভাবে মোকাবেলা করার হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন। নির্বাচন কমিশনের (ইসি) মিডিয়া সেন্টারে আজ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে দুই নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার সময় তিনি এ কথা বলেন।

সিইসি বলেন, সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য দলগুলোর উদ্দেশ্যে বলবো, আপনারা সহযোগিতা করুন। সবাই সহযোগিতা করলে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করা সম্ভব। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে নুরুল হুদা বলেন, গণমাধ্যমে কোনো অভিযোগ প্রচার/প্রকাশ হলে অথবা আমাদের কাছে কোনো অভিযোগ আসলে তা বিবেচনায় নিয়ে ব্যবস্থা নেবো। প্রার্থিতা প্রত্যাহারে কারো চাপ বা এ ধরনের অভিযোগ পেলেই তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন কারো অধীনে নয়। আমরা সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন করব। কোনো বাধা আসলে কঠোরভাবে তা মোকাবেলা করা হবে। আমাদের  রিটার্নিং কর্মকর্তা, পর্যবেক্ষকেরা সার্বক্ষণিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন। কোন অনিয়ম হলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নির্বাচন তফসিল ঘোষণার ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সব ধরনের প্রচার বন্ধ করতে হবে।

কুমিল্লা সিটি করপোরেশনে আগামী ৩০ মার্চ ভোটগ্রহণ হবে। দ্বিতীয়বারের মতো কুমিল্লায় ভোট হচ্ছে। তবে প্রথমবার নির্দলীয় হলেও এবার দলীয়ভাবে ভোটগ্রহণ হবে। সর্বশেষ সেখানে নির্বাচন হয়েছিল ২০১১ সালে। আওয়ামী লীগ নেতা প্রবীণ পার্লামেন্টারিয়ান সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত গত ৫ ফেব্রুয়ারি মৃত্যুবরণ করায় সুনামগঞ্জ-২ আসনের উপ-নির্বাচনও হচ্ছে ৩০ মার্চ।

বিডি প্রতিদিন/এ মজুমদার

আপনার মন্তব্য

up-arrow