Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ১২:৩২ অনলাইন ভার্সন
আপডেট : ১৮ জানুয়ারি, ২০১৮ ১২:৩৮
জামিনে থাকার পরও মায়ের মৃত্যুবার্ষিকীতে আদালতে খালেদা
অনলাইন ডেস্ক
জামিনে থাকার পরও মায়ের মৃত্যুবার্ষিকীতে আদালতে খালেদা
ফাইল ছবি

জামিনে থাকার পরও মায়ের মৃত্যুবার্ষিকীতে জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির দুই মামলায় আদালতে উপস্থিত হয়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। বৃহস্পতিবার বেলা ১২টার দিকে বিশেষ আদালতে হাজির হন তিনি।

রাজধানীর বকশীবাজারের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার ৫নং বিশেষ জজ ড. আখতারুজ্জামানের আদালতে এই মামলা দুটির যুক্তি উপস্থাপনের জন্য দিন ধার্য রয়েছে।

গত মঙ্গলবার ১০ম দিনের মতো জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদার পক্ষে যুক্তি উপস্থান শেষ করেন তার পাঁচ আইনজীবী। এরপর মামলার আরেক আসামি ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করেন তার আইনজীবী আহসান উল্লাহ। তার পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন শেষ না হওয়ায় আজ বৃহস্পতিবারও যুক্তি উপস্থাপনের দিন ধার্য রয়েছে।

এর আগে, বুধবার আসামিপক্ষের প্রধান আইনজীবী আবদুর রেজাক খান দাঁড়িয়ে খালেদা জিয়ার মায়ের মৃত্যুবার্ষিকীর কারণ দেখিয়ে বৃহস্পতিবার আদালতের কার্যক্রম স্থগিত বা মুলতবি রাখার আবেদন করেন। 

পরে বিচারক বলেন, ‘কাল ম্যাডাম অনুপস্থিত থাকবেন। মামলার আগামী তারিখ পর্যন্ত তিনি জামিনে থাকবেন। কিন্তু অন্য আসামিদের শুনানি চলবে।’’

তবে এতে খুশি হতে পারেননি খালেদা জিয়া। তিনি আইনজীবীদের ডেকে জানান, আগামীকালও (আজ) তিনি আদালতে উপস্থিত থাকবেন।

২০১০ সালের ৮ আগস্ট জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে টাকা লেনদেনের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় একটি মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। মামলার অপর আসামিরা হলেন খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, হারিছের তখনকার সহকারী একান্ত সচিব ও বিআইডব্লিউটিএর নৌ-নিরাপত্তা ও ট্রাফিক বিভাগের ভারপ্রাপ্ত পরিচালক জিয়াউল ইসলাম মুন্না এবং ঢাকার সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার একান্ত সচিব মনিরুল ইসলাম খান।

অপরদিকে, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার দু'বছর আগে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্টের অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে রমনা থানায় আরও একটি মামলা করে দুদক। এই মামলার অন্য আসামিরা হলেন মাগুরার সাবেক সংসদ সদস্য কাজী সালিমুল হক কামাল, ব্যবসায়ী শরফুদ্দিন আহমেদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সাবেক সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী ও সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ভাগ্নে মমিনুর রহমান।

বিডি-প্রতিদিন/১৮ জানুয়ারি, ২০১৭/মাহবুব

আপনার মন্তব্য

up-arrow