Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • চাটাইয়ে মুড়িয়ে প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় সম্মান!
  • কেরানীগঞ্জে বাচ্চু হত্যায় ৩ জনের ফাঁসি, ৭ জনের যাবজ্জীবন
  • ৩ মামলায় জামিন চেয়ে হাইকোর্টে খালেদার আবেদন
  • হালদা নদীর পাড়ের অবৈধ স্থাপনা ভাঙার নির্দেশ
  • আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা
  • কাদেরের বক্তব্যে একতরফা নির্বাচনের ইঙ্গিত: রিজভী
  • কলারোয়া সীমান্তে স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ বাংলাদেশিকে ফেরত দিল বিএসএফ
  • বিএনপি নির্বাচনে না এলেও গণতন্ত্র অব্যাহত থাকবে: কাদের
প্রকাশ : শুক্রবার, ৩ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৩ জুন, ২০১৬ ০২:৫২
হারবাল প্রতারণা
চার নাইজেরিয়ানসহ গ্রেফতার ৬
নিজস্ব প্রতিবেদক

ভুয়া হারবাল ওষুধের মাধ্যমে ক্যান্সারসহ জটিল রোগ নিরাময়ের কথা বলে লাখ লাখ টাকা প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে চার নাইজেরিয়ান নাগরিকসহ ছয়জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গত বুধবার রাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর ও মিরপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃতরা হলেন— সৈয়দ তাসলিম সাদাত ওয়াসতি, সায়েমা সাইদুর ওরফে বৃষ্টি ওরফে সোনিয়া, নাইজেরিয়ান নাগরিক মাধুবুকি ওনাকেয়েচি, নৌওয়াসু চিমেনজি আলবিনুস, অপারা গ্যামডোনাল্ড ও মাধুবুকি ক্রিসটিয়ান ইউচেন্না। র‌্যাব-২ সূত্র জানায়, গত ৫ মার্চ ইন্টারনেটের মাধ্যমে কয়েকজন বিদেশি ব্যক্তির সঙ্গে এক বাংলাদেশির পরিচয় হয়। একপর্যায়ে বিদেশিরা তাকে হারবাল ওষুধ হিসেবে এক ধরনের গাছের বীজ ব্যবসার প্রস্তাব দেয়।

আয়ুর্বেদিক ওষুধ কোম্পানিতে বীজগুলো বিক্রি করে প্রচুর লাভ হবে বলে তারা প্রলোভন দেখায়। ব্যবসার জন্য তিনি ৩ লাখ টাকার বীজের অর্ডার দেন। ব্যবসায়ী নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ ইসলামী ব্যাংক শাখার মাধ্যমে নাইজেরিয়ান নাগরিক মাধুবুকি ওনাকেয়েচিকে ১৫ মে এক লাখ ৪৭ হাজার টাকা অগ্রিম দেন। পরবর্তীতে মোহাম্মদপুরের লালমাটিয়া থেকে চক্রের সদস্য সোনিয়া ১০টি বীজের প্যাকেট দিয়ে এক লাখ ৫৩ হাজার টাকা নেয়। এরপর বীজগুলো নিয়ে বিভিন্ন হারবাল কোম্পানিতে যোগাযোগ করলে তা ভুয়া বলে প্রমাণিত হয়। পরে প্রতারকদের সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলে তাদের মোবাইল বন্ধ পাওয়া যায়। প্রতারিত ব্যক্তি অভিযোগ করলে র‌্যাব তদন্ত শুরু করে।

র‌্যাব জানায়, এ অবস্থায় ক্রেতা সেজে মোহাম্মদপুর এলাকা থেকে ওয়াসতি ও সোনিয়াকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে চার নাইজেরিয়ান নাগরিককে মিরপুর থেকে গ্রেফতার করা হয়। তারা জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছে, প্রতারণার মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার পর তারা মোবাইল ফোন বন্ধ রাখে। পরে নতুন সিম নিয়ে আবার প্রতারণা শুরু করে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow