Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৭ জুন, ২০১৬ ০২:১০
১৯ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে কারণ দর্শানোর নোটিস
নিজস্ব প্রতিবেদক

ভুল তথ্য দেওয়ায় ১৯ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানকে কারণ দর্শানোর নোটিস দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব অসীম কুমার কর্মকার স্বাক্ষরিত পৃথক তিন অফিস আদেশে এ নোটিস দেওয়া হয়। বলা হয়, আগামী সাত দিনের মধ্যে ভুল তথ্য সরবরাহের কারণের ব্যাখ্যা দিতে হবে। গতকাল এই অফিস আদেশ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে দেওয়া হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে রাজধানীর বাড্ডার সাঁতারকুল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, গোপালগঞ্জ জেলার মুকসুদপুরের এসএম মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কিশোরগঞ্জের তারাকান্দির চরটেকী গার্লস স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মাদারীপুর রাজৈর গোপালগঞ্জের কেজেএস পাইলট মডেল ইনস্টিটিউশন অ্যান্ড কলেজ, গাইবান্ধার সাঘাটার বাদিনার পাড়া উচ্চবিদ্যালয়, একই জেলার ফুলছড়ির চন্দনস্বর উচ্চবিদ্যালয়, ঠাকুরগাঁওয়ের ঢোলারহাট বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, নীলফামারীর ডিমলার উত্তর নাউতারা দ্বিমুখী উচ্চবিদ্যালয়, রাজশাহীর পবার বাগসারা বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, পাবনার চাটমোহরের বয়েনউদ্দিন বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, নওগাঁর মহাদেবপুরের বিলশিকারী উচ্চবিদ্যালয়, একই জেলার নিয়ামতপুরের ছাতড়া উচ্চবিদ্যালয়, জেলার মান্দায় এনায়েতপুর আইডিয়াল উচ্চবিদ্যালয়, সিরাজগঞ্জের কাজিপুরের পাঁচগাছি বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয়, বগুড়ার দুপচাঁচিয়ার সাহারপুকুর বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, নাটোর সদরের বুড়ি বটতলা বালিকা উচ্চবিদ্যালয়, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদরের এলবিসি আইডিয়াল গার্লস হাইস্কুল, একই জেলার ভোলাহাটের জামবাড়িয়া বালিকা উচ্চবিদ্যালয়।

জানা গেছে, একাডেমিক স্বীকৃতি প্রদানের ক্ষেত্রে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার ভুল তথ্য সরবরাহ করেছে এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। সংশ্লিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের সময় এমন অসঙ্গতি খুঁজে পায় মন্ত্রণালয়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow