Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ৮ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৮ জুন, ২০১৬ ০২:১৪
খিলগাঁওয়ে রাস্তা-ফুটপাথ দখল নিয়ে তুলকালাম
নিজস্ব প্রতিবেদক

রাস্তা ও ফুটপাথ জবরদখল করে দোকানপাট বসানোর ‘অবৈধ আবদার’ নিয়ে গতকাল রাজধানীর খিলগাঁওয়ে তুলকালাম কাণ্ড ঘটেছে। দখলবাজরা খিলগাঁও থানা-সংলগ্ন রাস্তা অবরোধ করে সব ধরনের যানবাহনে বেপরোয়া ভাঙচুর চালিয়েছে। তাদের তাণ্ডব থেকে রিকশাভ্যান, এমনকি পথচারীরাও রেহাই পাননি। খিলগাঁও তালতলা সিটি করপোরেশন সুপার মার্কেট বণিক সমিতির এক নেতার নেতৃত্বে বহিরাগত দেড় শতাধিক যুবক টানা দুই ঘণ্টা ধরে তাণ্ডবলীলা চালালেও পুলিশ ছিল নিষ্ক্রিয়। এ সময় হকার্স ব্যবসায়ীদের ব্যানারে সড়ক, ফুটপাথ ও ডিসিসি মার্কেটের আঙিনা পুনরায় দখল করে কয়েকশ দোকানপাটও বসানো হয়েছে। খিলগাঁও থানা সূত্র ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বেলা সাড়ে ১২টার দিকে বণিক সমিতির এক নেতা কিছুসংখ্যক যুবক নিয়ে ডিসিসি মার্কেটের সামনে অবস্থান নেয়। তারা লাঠিসোঁটা নিয়ে হৈচৈ, ভাঙচুর চালিয়ে গোটা এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে দেয়। এ সময় খিলগাঁও-তালতলা এলাকার সড়ক ও গলিপথ পর্যন্ত অবরোধ করে তারা বিক্ষোভ প্রদর্শন করতে থাকে। উচ্ছৃঙ্খল যুবকরা একটি পরিবহন কোম্পানির তিনটি বাসসহ ৮-১০টি গাড়ি এবং বেশ কিছু রিকশাভ্যান ভাঙচুর করে। পথচারীদের ওপরও হামলা চালায় তারা। দুই ঘণ্টাব্যাপী এ তাণ্ডবলীলা চালিয়ে তারা রাস্তা, ফুটপাথ ও ডিসিসি মার্কেটের আঙিনায় হকার্স মার্কেট বসানোর আবদার জানায়। এরপর কয়েকশ হকার তাদের রংবেরঙের ছাতা টানিয়ে দোকানপাট বিছিয়ে সড়ক-ফুটপাথ দখল করে নেয়।

ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়রের নির্দেশে মাত্র দেড় মাস আগে ওই এলাকায় উচ্ছেদ অভিযান চালায় ডিসিসি। ওই সময় খিলগাঁও তালতলা ডিসিসি মার্কেট ও আশপাশের সড়ক-ফুটপাথ থেকে দুই সহস্রাধিক অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়। এর পর থেকেই ডিসিসি মার্কেট বণিক সমিতির কতিপয় নেতার যোগসাজশে বহিরাগত দখলবাজরা পুনরায় দোকানপাট বসানোর পাঁয়তারায় লিপ্ত হয়। কিন্তু ডিসিসি দক্ষিণের মেয়র ও স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর রীতিমতো পাহারা বসিয়ে দখলবাজি প্রতিরোধ করেন। তবে দেড় মাসের মধ্যেই জবরদখলকারীরা পুনরায় সে জায়গা দখল করে নিল।

স্থানীয় সূত্রগুলো জানায়, ১১০০ বৈধ দোকানের তালতলা ডিসিসি মার্কেটের আঙিনা জুড়ে দেড় হাজারেরও বেশি অবৈধ দোকানপাট বসিয়ে একটি চক্র বছরের পর বছর ধরে বিপুল পরিমাণ টাকা লুটে নিচ্ছে। তারাই বারবার উচ্ছেদ অভিযানে বাধা দিয়ে থাকে। হকার নাম যুক্ত করে বিভিন্ন ভুঁইফোড় সংগঠনের ব্যানারে পুনরায় সড়ক, ফুটপাথ, মার্কেটের আঙিনাসহ সরকারি জায়গাজমি দখলবাজির ঘটনায় গোটা এলাকায় চরম ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। এ নিয়ে স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে দখলবাজদের যে কোনো মুহূর্তে সংঘাত-সংঘর্ষের আশঙ্কায় খিলগাঁওয়ে টানটান পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

up-arrow