Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ১৭ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৭ জুন, ২০১৬ ০২:০৬
ঈদ বোনাস চাইলেন এমপিরা
নিজস্ব প্রতিবেদক

সরকার ও বিরোধী দলের সংসদ সদস্যরা তৃণমূলের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতে প্রতি সংসদ সদস্যের অনুকূলে ১০০ কোটি টাকার থোক বরাদ্দ ও ঈদ বোনাস দাবি করেছেন। একই সঙ্গে বেসরকারি স্কুল-কলেজের সভাপতি পদে এমপিদের না থাকা বিষয়ে আদালতের রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেন তারা।

গতকাল জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে এমপিরা এ দাবি জানান। বেসরকারি স্কুল-কলেজের সভাপতি পদে এমপিদের না থাকার বিষয়ে আদালতের রায়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে সাবেক প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোতাহার হোসেন বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আমরা (এমপি) থাকব না, থাকবে কী ইউএনও সাহেবরা?  সরকারদলীয় সদস্য ইউনুস আলী সরকার বলেন, দেশের সবাই ঈদ বোনাস পান। সরকারি পিয়ন থেকে শুরু করে সচিব পর্যন্ত সবাই ঈদ বোনাস পান। বৈশাখেও বোনাস দেওয়া হয়। আমরা কেন বোনাস পাই না। তাই আমাদেরও বোনাসের ব্যবস্থা করা হোক। আমরা সবাই বোনাস চাই। এ সময় উপস্থিত এমপিরা টেবিল চাপড়ে তার দাবিকে সমর্থন করেন। এ সময় তিনি প্রত্যেক সংসদ সদস্যের জন্য ১০০ কোটি টাকার বরাদ্দের দাবি জানিয়ে বলেন, আগে যে ২০ কোটি টাকা থোক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল, তা দিয়ে সংসদ সদস্যরা এলাকার উন্নয়ন করেছেন। এখানে একটি পয়সাও এমপিদের পকেটে যায়নি বলে আমি বিশ্বাস করি। তাই ১০০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিলে উন্নয়ন আরও ত্বরান্বিত হবে। আলোচনায় অংশ নেন সরকারি দলের মোতাহার হোসেন, এম এ মালেক, ডা. ইউনুস আলী সরকার, বেগম হুসনে আরা ডালিয়া, ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ, ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা, বেগম রহিমা আক্তার প্রমুখ। , গোলাম মোস্তফা, আবদুল মালেক, অ্যাডভোকেট নাভানা আক্তার, বেগম আক্তার জাহান, গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস, অ্যাডভোকেট সামসুন নাহার ও জাতীয় পার্টির নুরুল ইসলাম মিলন। আলোচনা শেষে অধিবেশন আগামী শনিবার সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত মুলতবি করা হয়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow