Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বুধবার, ২২ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২২ জুন, ২০১৬ ০১:৪১
বেকার নারী পাচ্ছে কাজ পথশিশুরা আশ্রয়
মেহের আফরোজ চুমকি
নিজস্ব প্রতিবেদক

নারীদের কর্মসংস্থানের জন্য নানাবিধ প্রশিক্ষণ, ঝুঁকিপূর্ণ শ্রমে জড়িত শিশুদের পুনর্বাসন ও দেশব্যাপী শিশু বিকাশ কেন্দ্র গঠনসহ সরকার নানা উন্নয়নমূলক কাজ করে যাচ্ছে। মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি গতকাল সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের বাস্তবায়িত ও গৃহীত বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়ে রাজধানীর মহিলা বিষয়ক অধিদফতরে এক প্রেস বিফ্রিংয়ে কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী তার মন্ত্রণালয়ের উন্নয়নমূলক কাজের অগ্রগতি তুলে ধরে বলেন, আমরা বিভিন্ন প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বেকার নারীদের কাজের সুযোগ করে দিচ্ছি এবং ঝুঁকিপূর্ণ কাজে জড়িত পথশিশুদের নিরাপদ আশ্রয়ের ব্যবস্থা করছি।

মন্ত্রণালয়ের অগ্রগতি প্রতিবেদন অনুযায়ী, নারী উদ্যোক্তাদের বিকাশে ঢাকাসহ দেশের ২৯টি উপজেলায় বেকার ও উদ্যোক্তা নারীদের প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। উদ্যোক্তাদের উৎপাদিত পণ্য বিকাশে রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডে ইস্টার্ন মল্লিকা শপিং কমপ্লেক্সে উন্মেষ নামে বিক্রয় কেন্দ্র গড়ে তোলা হয়েছে। গাজীপুরের জিরানীতে শহীদ শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব আবাসিক প্রশিক্ষণ একাডেমিতে ১৮-৩৫ বছর বয়সী মহিলা প্রশিক্ষণার্থীদের আধুনিক গার্মেন্টস, টেইলারিং, বিউটিফিকেশন, মোবাইল সার্ভিসিং, বেসিক কম্পিউটার বিষয়ক প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া মহিলা কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, জিরাবো, সাভার হতে মাশরুম ও জৈব চাষাবাদ, বেকারি অ্যান্ড পেস্ট্রি ট্রেডে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া বেগম রোকেয়া প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে আধুনিক পদ্ধতিতে হাউস কিপিং অ্যান্ড কেয়ার গিভিং কোর্সে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। মহিলা কৃষি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র বাগেরহাট থেকে নারীবান্ধব পরিবেশে মহিলাদের আধুনিক গার্মেন্টস, মধুচাষ ও কম্পিউটারে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে। দেশের ১৩টি তথ্যকেন্দ্রের মাধ্যমে মহিলাদের সচেতন করা হচ্ছে। এর মাধ্যমে মহিলাদের তথ্যসেবা, স্বাস্থ্যসেবা এবং ডোর টু ডোর সেবা প্রদান করা হয়। এ ছাড়াও মহিলাদের জেলাভিত্তিক কম্পিউটার প্রশিক্ষণের মাধ্যমে গত বছর মোট ৫ হাজার ৮৮২ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। কিশোর-কিশোরীদের সচেতন করতে দেশের সব ইউনিয়নে মোট ৩৭৯টি কিশোর-কিশোরী ক্লাব পরিচালনা করা হচ্ছে। কর্মরত মহিলা গার্মেন্টস কর্মীদের জন্য সাভারের আশুলিয়ায় ১২ তলা হোস্টেল নির্মাণ করা হচ্ছে যার নির্মাণ কাজ এই মাসে শেষ হওয়ার কথা। ২০১৫ সাল পর্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ কাজে নিয়োজিত ২২ হাজারের ওপর শিশুকে শিশুশ্রম ছেড়ে নিয়মিত লেখাপড়ার শর্তে প্রতিমাসে ২ হাজার টাকা দেওয়া হচ্ছে। আড়ই লাখের ওপর শিশুকে নিরাপদে সাতার প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। দুস্থ শিশুদের জন্য দেশে ছয়টি শিশু বিকাশ কেন্দ্র গড়ে তোলা হয়েছে। দেশব্যাপী ১৪২টি প্রাক প্রাথমিক শিক্ষা কেন্দ্র পরিচালিত হচ্ছে। এর বাইরে রাজধানীর উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে পাইলট ভিত্তিতে পথশিশু পুনর্বাসন কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। দেশব্যাপী শিশুদের জন্য ৪৪টি ডে-কেয়ার সেন্টার পরিচালিত হচ্ছে। নারী নির্যাতন প্রতিরোধে মাল্টিসেক্টরাল প্রোগ্রামের আওতায় ২০০৯ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত মোট ১৭ হাজারের বেশি নির্যাতিত নারী ও শিশুকে সহায়তা প্রদান করা হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow