Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭

ঢাকা, শনিবার, ১৯ আগস্ট, ২০১৭
প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৮ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৮ জুন, ২০১৬ ০৩:২৬
আলোচিত সনুকে জিম্মায় নিতে পারেনি ভারতীয় হাইকমিশন
বরগুনা প্রতিনিধি

বরগুনায় আলোচিত ভারতের দিল্লির ১১ বছরের শিশু সনু ছয় মাস যশোর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে হেফাজতে থাকার পরও আইনি জটিলতার কারণে ভারতীয় হাইকমিশনের কাছে হস্তান্তর করা যায়নি।

২০১০ সালের ২৩ মে অভিরূপ সনু দিল্লির দিলশাদ গার্ডেন এলাকা থেকে নিখোঁজ হয়ে বাংলাদেশে আসে।

বাংলাদেশের বরগুনা জেলার বেতাগী উপজেলার কাজিরাবাদ ইউনিয়নের গেরামর্দন গ্রামের একটি পরিবারে তার ঠাঁই হয়। এখান থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় এক ব্যক্তি তাকে উদ্ধার করে সমাজসেবা দফতরে হস্তান্তর করেন। ২০১৫ সালের ২২ ডিসেম্বর সনুকে হাজির করা হলে তাকে যশোর কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্রে পাঠানোর নির্দেশ দেয় চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত।

দীর্ঘ ছয় মাস এই কেন্দ্রে থাকার পর রবিবার ভারতীয় হাইকমিশনের ফার্স্ট সেক্রেটারি রমাকান্ত গুপ্তা সনুকে ভারতীয় হাইকমিশনের জিম্মায় নেওয়ার জন্য বরগুনার শিশু ট্রাইব্যুনালে আবেদন করেন। গতকাল সনুকে আদালতে হাজির করা হয়। আদালতে ভারতীয় হাইকমিশনের পক্ষে অ্যাডভোকেট সঞ্জীব দাস শিশুটিকে হাইকমিশনের জিম্মায় দেওয়ার জন্য বক্তব্য পেশ করেন। এ সময় তিনি আদালতে সনুর ডিএনএ টেস্টের রিপোর্ট দাখিল করেন। দীর্ঘ শুনানি শেষে সনুকে বাংলাদেশের টাকার এক লাখ ২০ হাজার অর্থাৎ ভারতীয় এক লাখ রুপি বন্ডে ভারতীয় হাইকমিশনের জিম্মায় দেওয়ার নির্দেশ দেয় আদালত। রমাকান্ত গুপ্তা ভারতীয় হাইকমিশনের সঙ্গে আলাপ করে এক লাখ রুপি বন্ড দিয়ে সনুকে জিম্মায় নিতে অস্বীকৃতি জানান।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow