Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বুধবার, ২৯ জুন, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৮ জুন, ২০১৬ ২৩:৫৭
বগুড়া পৌরসভার কাছে বিদ্যুৎ বিভাগের পাওনা সাড়ে ২০ কোটি টাকা
নিজস্ব প্রতিবেদক, বগুড়া

বিদ্যুৎ বিভাগের কাছে বগুড়া পৌরসভার দেনার পরিমাণ প্রতিমাসে বাড়ছে। বর্তমানে বগুড়া পৌরসভার কাছে বিদ্যুৎ বিভাগের বকেয়া পাওনা দাঁড়িয়েছে ২০ কোটি ৬২ লাখ টাকা।   বগুড়া পৌরসভা ছাড়াও স্থানীয় সরকারি হাসপাতাল, সরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, স্টেডিয়ামসহ বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে কোটি কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া পড়েছে। এই বিশাল অঙ্কের টাকা পাওনা থাকলেও বিল পরিশোধে তেমন কোনো উদ্যোগ নেই প্রতিষ্ঠানগুলোর। সম্প্রতি বগুড়া পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় বিদ্যুৎ বিভাগ ১০টি এলাকার সংযোগ লাইন ও পানির পাম্প চালানোর সংযোগ লাইন বিচ্ছিন্ন করে দেয়। পরে বিল পরিশোধ করার শর্তে পুনরায় বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়। জানা যায়, বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের বগুড়া জোনের ৩টি ডিভিশনের বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-১ এর অধীনে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাছে বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পাওনা রয়েছে ৯ কোটি ১৭ লাখ টাকা। এর মধ্যে বগুড়া পৌরসভার কাছে ৭ কোটি ৬৫ লাখ টাকা, মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের কাছে ৭৬ লাখ টাকা এবং বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের কাছে বকেয়া রয়েছে ৭৬ লাখ ৩২ হাজার টাকা।

বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-২ এর অধীনে বিদ্যুৎ বিল পাওনা রয়েছে ৮ কোটি ৩২ লাখ টাকা। এরমধ্যে বগুড়া পৌরসভার বকেয়া ৭ কোটি ৫৮ লাখ টাকা, সরকারি আজিজুল হক কলেজের ২ লাখ টাকা, সরকারি মজিবর রহমান মহিলা কলেজের ২ লাখ টাকা ও বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের কাছে পাওনা ৭০ লাখ।

বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-৩ এর অধীনে মোট বকেয়া ৬ কোটি ১৩ লাখ টাকা। এর মধ্যে বগুড়া পৌরসভার ৫ কোটি ৩৯ লাখ, বগুড়া শহীদ চান্দু স্টেডিয়ামের ২৬ লাখ, বিভিন্ন ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের রয়েছে ৩৫ লাখ এবং সাতানী কোল্ড স্টোরেজের কাছে বিদ্যুৎ বিল পাওনা রয়েছে ১৩ লাখ টাকা।

বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডে বগুড়ার বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ-১ এর নির্বাহী প্রকৌশলী আবু হেনা মোস্তফা কামাল জানান, বগুড়ায় যে পরিমাণ বিদ্যুৎ বকেয়া রয়েছে তার সিংহভাগ পাওনা রয়েছে বগুড়া পৌরসভার কাছে। বারবার তাগিদ দেওয়ার পরেও বিল পরিশোধ করছে না। এ কারণে ২৭ জুন পৌরসভার বিদ্যুৎ সংযোগও বিচ্ছন্ন করা হয়। বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকা প্রতিষ্ঠানগুলোকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। শহরে মাইকিং করা হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow