Bangladesh Pratidin

ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০১৭

প্রকাশ : সোমবার, ৪ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৪ জুলাই, ২০১৬ ০০:৫১
আইনজীবীদের অভিমত
উগ্রবাদ প্রতিরোধে চাই জাতীয় ঐক্য পারিবারিক উদ্যোগ
নিজস্ব প্রতিবেদক

সাম্প্রতিক জঙ্গি হামলার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবীরা। তারা বলছেন, এ ধরনের ঘটনা কঠোরভাবে মোকাবিলা করতে হবে। এর বিরুদ্ধে জাতীয় ঐক্য গড়ার পাশাপাশি পরিবার থেকেই ধর্মীয় উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ করতে হবে। বাবা-মাকে সচেতনভাবে সন্তানদের ওপরে নজর ও তাদের চিন্তা-চেতনা সম্পর্কে খোঁজখবর রাখতে হবে। এর কুফল সম্পর্কে তাদের জানাতে হবে। আইনজীবীরা বলছেন, জঙ্গিবাদকে মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে দেওয়া যাবে না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে একে মোকাবিলা করতে হবে। বাংলাদেশের মাটিতে জঙ্গিবাদের প্রশ্রয় দেওয়া যাবে না। গতকাল বাংলাদেশ প্রতিদিনকে টেলিফোনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তারা এসব কথা বলেন।   এ বিষয়ে প্রবীণ আইনজীবী বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আবদুল বাসেত মজুমদার বলেন, দেখা যাচ্ছে সাম্প্রতিক উগ্র ধর্মীয় ও জঙ্গি সংশ্লিষ্ট হামলায় জড়িতদের বেশির ভাগই বয়সে তরুণ। তারা প্রতিষ্ঠিত পরিবারের সন্তান। বিভিন্ন নামিদামি স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করে। এটা দেখে একজন সিনিয়র নাগরিক হিসেবে আমার খুবই খারাপ লাগে। আমি উদ্বিগ্ন ও চিন্তিত। এরা এভাবে বিপথে যাবে কেন? তাদের সামনে তো উজ্জ্বল ভবিষ্যতের হাতছানি। কিন্তু এসবকে তুচ্ছ করে তারা কেন মানুষ হত্যার মতো জঘন্য কাজে নিজেদের হাত রক্তে রঞ্জিত করছে? তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জঙ্গিদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স। তার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। প্রতিটি পরিবারকে, বাবা-মাকে এ বিষয়ে সচেতন হতে হবে। সন্তানদের সঙ্গে মিশে তাদের চিন্তাভাবনা সম্পর্কে জানতে হবে। এ বিষয়ে গণমাধ্যম ও সুশীল সমাজেরও কার্যকর ভূমিকা নিতে হবে। সুপ্রিমকোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ও বঙ্গবন্ধু আইনজীবী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক লায়েকুজ্জামান মোল্লা বলেন, আমার ধারণা এসব কোমলমতি তরুণ ও যুবকদের বিএনপির সঙ্গে মিলে স্বাধীনতাবিরোধী জামায়াত-শিবির পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছে। তাদের রুখে দাঁড়াতে হবে। গ্রাম ও পাড়া-মহল্লায় উগ্রবাদ ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়তে হবে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে দলমত নির্বিশেষে এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow