Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ২৫ জুলাই, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৫ জুলাই, ২০১৬ ০০:১৪
জঙ্গিদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার আহ্বান আইজিপির
কক্সবাজার প্রতিনিধি

জঙ্গিদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক। তিনি বলেছেন, দেশের মানুষ জঙ্গিবাদকে ঘৃণা করে, তাই জঙ্গিদের জানাজা পড়ার লোকও মেলে না। যারা জঙ্গি হয়েছেন তাদের প্রতি অনুরোধ জানিয়ে আইজিপি বলেন, সঠিক পথে ফিরে আসুন। স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসে পরিবারের অশান্তি দূর করুন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এক্ষেত্রে সহযোগিতা করবে। সরকারও সাধারণ ক্ষমা করবে। আইজিপি বলেন, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ঐক্যের ডাক দিয়েছেন। জঙ্গিবিরোধী চেতনা গ্রাম-গঞ্জে ছড়িয়ে দিতে কাজ চলছে। যারা ইসলামের নামে দেশকে ধ্বংস করতে চাইছে, তাদের ঐক্যবদ্ধভাবে প্রতিরোধ করতে হবে। গতকাল দুপুরে কক্সবাজার শহরের অভিজাত হোটেল দ্য কক্সটুডের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত ‘সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

জেলা পুলিশের এই মতবিনিময় সভায় বিভিন্ন মসজিদ-মন্দিরের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন। আইজিপি বলেন, ইসলামের নামে মানুষ হত্যা আর সন্ত্রাস-নাশকতা চালিয়ে জঙ্গিরা দেশকে অস্থিতিশীল করার চক্রান্ত করছে। আমরা তা কোনো দিন সফল হতে দেব না। আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে রক্ষা করতে হলে জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসবাদকে সম্মিলিতভাবে রুখে দাঁড়াতে হবে।

রাজধানীর গুলশানে হামলাকারীদের সম্পর্কে আইজিপি বলেন, তাদের ইসলাম সম্পর্কে তেমন ধারণা ছিল না। তাদের লাশ পড়ে আছে, কেউ নিতেও আসছে না। কারণ, জঙ্গিদের মানুষ ঘৃণা করে। তার দৃষ্টান্ত শোলাকিয়ার ঘটনায় নিহত এক জঙ্গির জানাজা। ওই জানাজায় ইমাম ছাড়া কোনো মানুষ অংশ নেননি।

আইজিপি মনে করেন, ইসলামের নামে একটা শ্রেণি জঙ্গিবাদের জন্ম দিয়েছে। জঙ্গিবাদে কোনো শান্তি নেই। জঙ্গিবাদ ধ্বংস ছাড়া কোনোভাবেই কল্যাণ বয়ে আনতে পারে না।

আইজিপি শহীদুল হক আরও বলেন, জঙ্গিবাদ প্রতিরোধে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালিয়ে যেতে হবে। এ সময় তিনি মসজিদ-মন্দিরে জঙ্গিবাদবিরোধী প্রচারণা চালানোর আহ্বান জানান।

পুলিশের মহাপরিদর্শক বলেন, জঙ্গিরা ছেলেদের টার্গেট করে। জিহাদের কথা বলে উদ্বুদ্ধ করে। হিজরতের নামে ঘর থেকে বের করে জঙ্গি প্রশিক্ষণ দেয়। তারপর বেহেশতের কথা বলে ছেলেদের জঙ্গিবাদে নামায়। এ ব্যাপারে বাবা-মায়েদের বেশি সচেতন হতে হবে। সন্তানদের ব্যাপারে চোখ-কান খোলা রাখতে হবে। বাংলাদেশকে জঙ্গিদের উর্বর মাটি করতে দেওয়া যাবে না।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম।

পুলিশ সুপার শ্যামল কুমার নাথের সভাপতিত্বে সভায় আরও বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মো. আলী হোসেন, কক্সবাজার সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ এ কে এম ফজলুল করিম চৌধুরী, ১৭ বিজিবির অধিনায়ক লে. কর্নেল ইমরান উল্লাহ সরকার প্রমুখ।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow