Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ৪ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শুক্রবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২৩:১৩
ঢাবিতে সেমিনারে বক্তারা
জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় নৈতিক শিক্ষার উপর গুরুত্বারোপ
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় পরিবার ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে তরুণদের নৈতিক শিক্ষার উপর গুরুত্ব দিতে হবে। গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট (আইবিএ) মিলনায়তনে ‘জঙ্গিবাদের উত্থান এবং করণীয়’ শীর্ষক এক সেমিনারে বক্তারা এ আহ্বান জানান। ঢাবির ব্যবসায় প্রশাসন ইনস্টিটিউট (আইবিএ) এবং বাংলাদেশ এমবিএ অ্যাসোসিয়েশন যৌথভাবে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক। আইবিএ’র পরিচালক অধ্যাপক ড. এ কে এম সাইফুল মজিদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুল, বাংলাদেশ এমবিএ অ্যাসোসিয়েশনের সহ-সভাপতি মো. আমিনুর রহমান ও মেহেদী মাহবুব। মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কাউন্টার টেরোরিজম এবং ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম।

অধ্যাপক আরেফিন সিদ্দিক বলেন, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসবাদ উত্থান মোকাবিলায় সমাজের সব পেশার জনগণকে সর্বাত্মক ভূমিকা পালন করতে হবে। তথাকথিত আইএস ইসলামের নামে ইসলামকে ধ্বংসের চক্রান্তে লিপ্ত রয়েছে। বিভিন্ন ইসলামী জঙ্গিগোষ্ঠী আজ ধর্মের নামে ধর্মের বিরুদ্ধে, মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ সংঘটিত করছে। এ অবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিশেষ করে তরুণ সমাজের মধ্যে অসাম্প্রদায়িক  চেতনাবোধ ও মানবতাবোধ জাগ্রত করতে হবে। তাদের বাঙালির ইতিহাস-ঐতিহ্য-সংস্কৃতির শিক্ষা প্রদান করতে হবে। শিক্ষা ব্যবস্থার সমন্বয় সাধন করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের বিভিন্নমুখী শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে বিশেষ করে বাংলা মিডিয়াম ও ইংরেজি মিডিয়াম, সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষা এবং মাদরাসা শিক্ষা ব্যবস্থার মধ্যে সমন্বয় সাধন করে ধর্মনিরপেক্ষতাবাদ নিয়ে দেশকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। পারিবারিক শিক্ষার পাশাপাশি আমাদের সন্তানদের নৈতিকতা ও মূল্যবোধের শিক্ষা দিতে হবে।

কাউন্টার টেরোরিজম এবং ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের প্রধান তার মূল প্রবন্ধে বলেন, জঙ্গিবাদ একটি বৈশ্বিক সমস্যা। বিশ্বের উন্নত, উন্নয়নশীল ও অনুন্নত অনেক দেশে সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটেছে। সাম্প্রতিককালে সংঘটিত সন্ত্রাসী ও জঙ্গি কার্যক্রম সংঘটিত হচ্ছে ইসলামের নামে। ইসলাম ধর্মের ভুল ও বিকৃত ব্যাখ্যা প্রদান করে হতাশ ও বিপদগামী তরুণদের জঙ্গিবাদে আকৃষ্ট করা হয়েছে। এই জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow