Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শুক্রবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:১৪
কারাগারের জমি জবিকে হস্তান্তর
প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা দাবিতে আলটিমেটাম
জবি প্রতিনিধি

আগামী ১৫ দিনের মধ্যে নতুন হল নির্মাণ ও পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয় কারাগারের জমি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়কে (জবি) হস্তান্তরে প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা না এলে ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে বৃহত্তর আন্দোলন কর্মসূচির ঘোষণা দিয়েছেন আন্দোলনরতরা। একই সঙ্গে আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর প্রতিটি জেলায় মানববন্ধন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।

গতকাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির পাশে স্বাধীনতা হলে আয়োজিত গোলটেবিল বৈঠকে এই ঘোষণা দেওয়া হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ও শিক্ষক আনু মুহাম্মদ, ডাকসুর সাবেক জিএস ডা. মোশতাক আহমেদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. তানজিম উদ্দিন খান, ব্যারিস্টার জ্যোতির্ময় বড়ুয়া, শিক্ষাবিদ এ এন রাশেদা, স্থপতি সাঈদা সুলতানা এ্যানী, পুরান ঢাকার সাংস্কৃতিক সংগঠক আবু তাহের বকুল, যবিপ্রবির সহকারী অধ্যাপক কিবরিয়া ইসলাম প্রমুখ। বক্তারা আবাসিক হল নির্মাণ ও পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয় কারাগারের জমি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়কে হস্তান্তরের দাবিকে যৌক্তিক হিসেবে উল্লেখ করেন।

এলাকাবাসীর সব চাওয়া পূরণ করেই সেখানে শিক্ষার্থীদের আবাসিক হল নির্মাণে সরকারের পদক্ষেপ নেওয়ার আহ্বান জানান তারা। অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, আবাসন ছাড়া একটি বিশ্ববিদ্যালয় কখনই পূর্ণাঙ্গ হতে পারে না। পরিত্যক্ত কারাগারে এলাকাবাসীর খেলার মাঠ, হাঁটাচলার জায়গাসহ সাংস্কৃতিক সব উপাদান রেখেই আবাসিক হল নির্মাণ সম্ভব। অধ্যাপক তানজিম উদ্দিন খান বলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আবাসিক হল নির্মাণে ব্যর্থতার দায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও সরকার কোনোভাবেই এড়িয়ে যেতে পারে না। কর্মসূচি : ১৫ সেপ্টেম্বর ৬৪ জেলায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের হলের দাবিতে মানববন্ধন। আগামী ১৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে দাবি আদায়ে প্রধানমন্ত্রীর সুস্পষ্ট কোনো ঘোষণা না এলে পরদিন থেকে বৃহত্তর আন্দোলন কর্মসূচি পালিত হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow