Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : সোমবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০৩:১০
ইমাম ও শিক্ষকদের নজরদারিতে রাখার সুপারিশ সংসদীয় কমিটির
নিজস্ব প্রতিবেদক

স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকসহ মসজিদের ইমামদের নজরদারিতে রাখার সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। একই সঙ্গে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের কার্যক্রমে কোথাও কোনোভাবে জঙ্গিবাদ উসকে দিচ্ছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণের আওতায় রাখার সুপারিশ করেছে কমিটি।

সংসদ ভবনে গতকাল অনুষ্ঠিত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এসব সুপারিশ করা হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি টিপু মুনশি। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালসহ সব সদস্য বৈঠকে উপস্থিত থেকে গতকাল বিরল নজির গড়েন। বৈঠকে কমিটির সদস্য মো. মোজাম্মেল হোসেন, মো. শামসুল হক টুকু, ওমর ফারুক চৌধুরী, মো. ফরিদুল হক খান, আবুল কালাম আজাদ, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, ফখরুল ইমাম ও কামরুন নাহার চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকের বিষয়ে কমিটির সদস্য ফখরুল ইমাম সাংবাদিকদের বলেন, নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির মতো নামিদামি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা যদি জঙ্গিবাদে জড়িত থাকতে পারেন, তাহলে অন্য প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদেরও এর বাইরে ভাবার কারণ নেই। তাদেরও কঠোর মনিটরিংয়ের আওতায় আনা দরকার। এ ছাড়া শুক্রবার জুমার আগে ইমামদের মাধ্যমে মসজিদে জঙ্গিবাদবিরোধী বক্তব্য প্রদান, তথ্য মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে জঙ্গিবাদবিরোধী ডকুমেন্টারি প্রদর্শন, শর্ট ফিল্ম, বিজ্ঞাপনচিত্র, ভিডিওক্লিপ ইত্যাদি ব্যাপকভাবে প্রচারের সুপারিশ করা হয়।

একই সঙ্গে সমাজের গণ্যমান্য ব্যক্তি, ইমাম-শিক্ষক, জনপ্রতিনিধি, এনজিওসহ সবার সমন্বয়ে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সচেতনতামূলক কার্যক্রম গ্রহণেরও সুপারিশ করা হয়। এসব কর্মসূচিতে স্কুল, কলেজে ছাত্রছাত্রীদের হাজিরা নিশ্চিত করারও সুপারিশ করা হয়।

কমিটি সূত্র জানায়, জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় পুলিশের পর্যাপ্ত গাড়ি নেই বলে জানানো হয়। এ পরিপ্রেক্ষিতে দ্রুত নতুন গাড়ি ক্রয় করে দেশের বিভিন্ন জেলা ও থানা পর্যায়ে পুলিশভ্যান সরবরাহের সুপারিশ করে কমিটি। এ ছাড়া যেসব মন্ত্রণালয় তৃণমূল পর্যায়ে কাজ করে, বিশেষ করে শিক্ষা, কৃষি, শ্রম, খাদ্য, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমের সঙ্গে জঙ্গিবাদবিরোধী কার্যক্রম যুক্ত করার সুপারিশ করা হয়।

বৈঠকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব ড. মো. মোজাম্মেল হক খান, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হকসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow