Bangladesh Pratidin

ফোকাস

  • চাটাইয়ে মুড়িয়ে প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধাকে রাষ্ট্রীয় সম্মান!
  • কেরানীগঞ্জে বাচ্চু হত্যায় ৩ জনের ফাঁসি, ৭ জনের যাবজ্জীবন
  • ৩ মামলায় জামিন চেয়ে হাইকোর্টে খালেদার আবেদন
  • হালদা নদীর পাড়ের অবৈধ স্থাপনা ভাঙার নির্দেশ
  • আফগানিস্তানের বিপক্ষে টাইগারদের টি-টোয়েন্টি দল ঘোষণা
  • কাদেরের বক্তব্যে একতরফা নির্বাচনের ইঙ্গিত: রিজভী
  • কলারোয়া সীমান্তে স্বামী-স্ত্রীসহ ৩ বাংলাদেশিকে ফেরত দিল বিএসএফ
  • বিএনপি নির্বাচনে না এলেও গণতন্ত্র অব্যাহত থাকবে: কাদের
প্রকাশ : শুক্রবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০২:৪১
তিন তালাক ও বহুবিবাহের বিরোধিতা করতে চলেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার
কলকাতা প্রতিনিধি

তিন তালাকে বিবাহবিচ্ছেদ নিষিদ্ধ করার পক্ষে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। দেশটির সুপ্রিমকোর্টকে এ কথা জানাতে চলেছে কেন্দ্র। তিন তালাক প্রথা নিষিদ্ধ করার বিষয়ে কেন্দ্রের অবস্থান জানতে চেয়ে সম্প্রতি শীর্ষ আদালত নোটিস পাঠায়। সেই নোটিসের বিষয়বস্তু নির্ধারণ সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিতে বুধবার মন্ত্রিপর্যায়ের একটি বৈঠক হয়। এতে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং, অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি, প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পারিকর এবং নারী ও শিশুকল্যাণমন্ত্রী মানেকা গান্ধীর মতো মন্ত্রীরা। সূত্রের খবর, ওই বৈঠকেই সিদ্ধান্ত হয় তিন তালাক নিষিদ্ধ করার পক্ষেই মত দেবে কেন্দ্রীয় সরকার।

মুসলিমদের মধ্যে তিন তালাক ও বহুবিবাহ নিষিদ্ধ করার আবেদন জানিয়ে শীর্ষ আদালতে একটি জনস্বার্থ মামলা করেন কয়েকজন মুসলিম মহিলা। তাদের সমর্থন করে কয়েকটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাও। যদিও অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড তিন তালাক ও বহুবিবাহ নিষিদ্ধ করার প্রতিবাদ করে। বোর্ডের দাবি, কোরআন অনুযায়ী এ প্রথা নিষিদ্ধ করা হলে ধর্মবিরোধী হবে। আদালত এ বিষয়ে হস্তক্ষেপ না করলেই ভালো হয়। এরপর শীর্ষ আদালতও নিজে থেকে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত না নিয়ে বল ঠেলে দেয় কেন্দ্রীয় সরকারের কোর্টে। কেন্দ্রের অবস্থান জানতে চেয়ে ৫ সেপ্টেম্বর নোটিস পাঠায় আদালত। শীর্ষ আদালতের প্রধান বিচারপতি টি এস ঠাকুর ও বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়ের দ্বৈত বেঞ্চ নোটিসের জবাব চেয়ে চার সপ্তাহ সময় দেয় কেন্দ্রকে।

সম্ভবত শিগগিরই কেন্দ্র শীর্ষ আদালতকে জানিয়ে দিতে চায় যে তারা তিন তালাকের মতো মধ্যযুগীয় প্রথার পক্ষে নয়। প্রসঙ্গত, পাকিস্তান, ইরাক ও সৌদি আরবের মতো ইসলামিক রাষ্ট্রগুলোতেও তিন তালাকে বিবাহবিচ্ছেদের প্রথা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। নয় তো কিছু বিশেষ ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধ। ফলে এই ধর্মনিরপেক্ষ দেশে শরিয়তি তিন তালাক চালু রাখার কোনো সার্থকতা নেই বলেই মনে করেন অনেকে। এর আগে গত বছর নারী ও শিশুকল্যাণ মন্ত্রণালয় গঠিত একটি উচ্চপর্যায়ের কমিটিও তিন তালাক নিষিদ্ধ করার পক্ষে সওয়াল করে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow