Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৪৮
বেঁচে যাওয়া ‘মৃত’ সেই শিশুটি এখন ঢাকায়
ফরিদপুর প্রতিনিধি

ফরিদপুরে জন্ম নেওয়ার পর হাসপাতাল থেকে মৃত ঘোষণা এবং পরে কবরস্থানে দাফনের সময় কেঁদে ওঠা শিশু গালিবা হায়াতকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। গতকাল বিকাল ৫টা ২৫ মিনিটে হেলিকপ্টারযোগে তাকে ঢাকায় পাঠানো হয়।

গত দুই দিন ধরে ফরিদপুরের ড. জাহেদ শিশু মেমোরিয়াল হাসপাতালে সে নিবিড় পর্যবেক্ষণে ছিল। হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, পাঁচ মাস ২২ দিনের মাথায় শিশুটি ভূমিষ্ট হওয়ায় নানা জটিলতা দেখা দেয়। শিশুটির জন্য যে চিকিৎসা দরকার তা ফরিদপুরে না থাকায় ঢাকায় নেওয়ার প্রয়োজন পড়ে। পরিবারটির পক্ষে ব্যয়বহুল চিকিৎসা ও ঢাকায় নেওয়ার সামর্থ্য না থাকায় এক ব্যক্তি হেলিকপ্টারযোগে ঢাকায় নেওয়ার ব্যবস্থা করেন। এদিকে, সদ্যোজাত বেঁচে থাকা শিশুকে ‘মৃত’ ঘোষণা করায় চিকিৎসকের অবহেলার কারণ খুঁজে বের করতে ফরিদপুর সদর হাসপাতালের চিকিৎসক উষা রঞ্জন চক্রবর্তীকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যবিশিষ্ট একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিকে সাত দিনের মধ্যে রিপোর্ট দিতে বলা হয়েছে। গত ২২ সেপ্টেম্বর রাতে ফরিদপুরের বেসরকারি ডা. জাহেদ শিশু মেমোরিয়াল হাসপাতালে জন্ম নেয় নাহমুল হুদা ও নাজনীন আক্তার দম্পতির কন্যা শিশুটি। পরে চিকিৎসকরা শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন। ভোরে শিশুটিকে দাফন করতে কবরস্থানে নেওয়া হয়। দাফনের আগে সে কেঁদে উঠলে দ্রুতই তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

up-arrow