Bangladesh Pratidin

ঢাকা, রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৩ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:১৮
বাঘসহ বন্যপ্রাণী রক্ষায় সরকার জিরো টলারেন্সে : মঞ্জু
নিজস্ব প্রতিবেদক

পরিবেশ ও বনমন্ত্রী আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেছেন, সুন্দরবনের বাঘ এবং অন্যান্য বন্যপ্রাণী রক্ষায় বনবিভাগ, কোস্টগার্ড ও র‌্যাবের সার্বক্ষণিক টহলের মাধ্যমে সরকার ইতিমধ্যে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি গ্রহণ করেছে। বাঘ ও অন্যান্য বন্যপ্রাণী রক্ষার্থে সভা, সেমিনারসহ বিভিন্ন জনসচেতনতামূলক কার্যক্রমও অব্যাহত রয়েছে।

জাসদের সংসদ সদস্য লুত্ফা তাহেরের কার্যপ্রণালি বিধির ৭১ বিধিতে আনা নোটিসের জবাবে দেওয়া সংক্ষিপ্ত বিবৃতিতে মন্ত্রী এ কথা জানান। মন্ত্রী আরও বলেন, বন্যপ্রাণী ও গাছপালা রক্ষার ক্ষেত্রে দক্ষিণ এশিয়ার আটটি দেশ বর্তমানে বিরাট সংকটে পতিত। এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে সরকার নিজস্ব কিছু পরিকল্পনা নিয়েছে। এর সঙ্গে বিদেশি কয়েকটি সাহায্যদাতা সংস্থাও সম্পৃক্ত রয়েছে। আনোয়ার হোসেন মঞ্জু বলেন, সুন্দরবনে বর্তমানে তিনটি বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য রয়েছে। যার আয়তন প্রায় ১ লাখ ৩৯ হাজার ৬৯৯ হেক্টর। চলতি বছরে এই তিনটি অভয়ারণ্যের আয়তন বৃদ্ধি করে অতিরিক্ত প্রায় ২ লাখ ৪৫ হাজার ২৩০ হেক্টর করার প্রস্তাব সরকারের সক্রিয় বিবেচনাধীন। যা সুন্দরবনের মোট আয়তনের প্রায় ৬৪ শতাংশ। সুন্দরবনে সব এলাকাতেই কম-বেশি বাঘের বিচরণ পরিলক্ষিত হয় এবং সুন্দরবনে বাঘের প্রজনন এখনো স্বাভাবিক রয়েছে। সর্বশেষ জরিপ অনুযায়ী সুন্দরবনে বাঘের সংখ্যা ১০৬টি। লুত্ফা তাহের তার নোটিসে বলেন, নানা কারণে সুন্দরবনের বাঘের আবাসস্থল, জীবনাচরণ ও প্রজনন প্রক্রিয়া চরম নিরাপত্তাহীনতায় পড়েছে। হুমকির মুখে পড়েছে বিশ্ব ঐতিহ্যের প্রধান প্রাণী রয়েল বেঙ্গল টাইগারের সংরক্ষণ ও বৃদ্ধি।

এ ছাড়া জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে পানি ও মাটিতে লবণাক্ততা বৃদ্ধির কারণেও বাঘের বাসযোগ্য পরিবেশ ধ্বংস হচ্ছে। উপরন্তু প্রাকৃতিক দুর্যোগ- আইলা, সিডর, সাইক্লোনের কারণেও বাঘের অস্তিত্ব আজ হুমকির মুখে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow