Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ১০ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ৬ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ৫ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৩০
দুর্নীতি করলেই জেলে যেতে হবে
---------------- ইকবাল মাহমুদ
নিজস্ব প্রতিবেদক

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, যারা দুর্নীতি করে তাদের অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। দুর্নীতি করে এখন আর ঘরে থাকা যাবে না।

অবশ্যই জেলে যেতে হবে। গতকাল রাজধানীর সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ে বাংলাদেশ গার্লস গাইড অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, দুর্নীতি একটি সর্বগ্রাসী ব্যাধি। এটা সব জায়গায় আছে। সরকারি-বেসরকারি এমন কোনো জায়গা নেই, যেখানে দুর্নীতির ক্ষতিকর ছোঁয়া লাগেনি। আমরা সব ধরনের দুর্নীতি নির্মূলে কাজ করছি। কিন্তু কিছু লোক আইনের আশ্রয় নেওয়ায় কিছুটা জটিলতা হয়েছে। শিগগিরই এ জটিলতা নিরসন হচ্ছে। আমাদের কাছে থাকা দুর্নীতিবাজদের তালিকা ধরে আইনের মুখোমুখি করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। বর্তমান কমিশনের আমলে গতকাল পর্যন্ত ৩১০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ধারা চলমান থাকবে। তিনি বলেন, দুদকে অভিযোগ এলে প্রাথমিক তদন্ত শেষে প্রমাণিত হলে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করবে দুদক। দুদককে এখন আর দন্তহীন বাঘ বলা যাবে না। আমরা সীমিত জনবল নিয়ে কাজ করছি। আমাদের কাজের সীমাবদ্ধতা রয়েছে। এসব সত্ত্বেও আমরা কাজের ধরন পাল্টিয়েছি। তলব করা সীমিত করা হয়েছে। আমাদের হাতে অভিযোগ এলেই ঘটনাস্থলে ছুটে যাবেন আমাদের কর্মকর্তারা। এ ছাড়া আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ফোর্স বাড়ানোর প্রস্তাব করেছি। সাম্প্রতিক সময়ে আদালতে দুদকের মামলায় অভিযুক্তরা খালাস পাচ্ছেন না। এটা সম্ভব হয়েছে তদন্ত কর্মকর্তাদের পরিশ্রমের কারণে।

ইকবাল মাহমুদ বলেন, আমরা এখনো বিশিষ্টজনদের সঙ্গে মতবিনিময় করে পরিকল্পনা ও পরামর্শ নিচ্ছি। সঠিক পরিকল্পনা নিয়ে এগিয়ে যেতে চাই। তবে এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য সময়ও বেঁধে দেওয়া হচ্ছে। আমাদের আকাঙ্ক্ষা বড় থাকতে হবে। তাই আমরা বড় ধরনের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি। যদিও জানি সবকিছু বাস্তবায়ন করা খুব কঠিন। দুর্নীতির কারণে আমাদের প্রবৃদ্ধির প্রায় ২ শতাংশ নষ্ট হচ্ছে। যদি আমরা দুর্নীতি দমন করতে পারি তাহলে আমাদের অর্থনীতির চাকা আরও সচল হবে।

up-arrow