Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : সোমবার, ১০ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা প্রিন্ট ভার্সন আপলোড : ৯ অক্টোবর, ২০১৬ ২৩:৫৯
খালেদার আপিলের শুনানি ৩১ অক্টোবর
নাইকো মামলা
নিজস্ব প্রতিবেদক

নাইকো দুর্নীতি মামলা বাতিলের আবেদন খারিজ করে হাইকোর্টের দেওয়া রায়ের বিরুদ্ধে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার লিভ টু আপিল শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। গতকাল চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী এ দিন ধার্য করেন। ৩১ অক্টোবর আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে আবেদনটি শুনানির জন্য কার্যতালিকায় আসবে। আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী ও রাগিব রউফ চৌধুরী শুনানি করেন। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ আদালতে এ মামলা বিচারাধীন। আইনজীবীরা জানান, এই মামলায় খালেদা      জিয়ার লিভ টু আপিলের ওপর ৩১ জুলাই শুনানির দিন ধার্য থাকলেও ওই দিন বিষয়টি কার্যতালিকায় আসেনি। পরে খালেদার আইনজীবীরা শুনানির তারিখ ধার্য চেয়ে আবারও আবেদন করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে আবেদনটি কার্যতালিকায় আসে। সেনাসমর্থিত বিগত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে খালেদা জিয়া গ্রেফতার হওয়ার পর ২০০৭ সালের ৯ ডিসেম্বর তার বিরুদ্ধে রাজধানীর তেজগাঁও থানায় দুদক নাইকো দুর্নীতি মামলা দায়ের করে। পরবর্তী বছরের ৫ মে তিনিসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়। এতে অভিযোগ করা হয়, ক্ষমতার অপব্যবহার করে তিনটি গ্যাসক্ষেত্র পরিত্যক্ত দেখিয়ে কানাডীয় কোম্পানি নাইকোর হাতে তুলে  দেওয়ার মাধ্যমে আসামিরা রাষ্ট্রের প্রায় ১৩ হাজার ৭৭৭  কোটি টাকার ক্ষতি করেছেন। এরপর খালেদা জিয়ার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ২০০৮ সালের ৯ জুলাই দুর্নীতির এই মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে হাইকোর্ট। একই সঙ্গে মামলা দায়ের কেন আইনগত কর্তৃত্ববহির্ভূত ও বাতিল  ঘোষণা করা হবে না রুল জারি করে তা জানতে চায় আদালত। ২০০৮ সালের ৯ সেপ্টেম্বর এ মামলায় জামিন পান খালেদা জিয়া। প্রায় সাত বছর পর গত বছরের শুরুতে রুল নিষ্পত্তির মাধ্যমে মামলাটি সচলের উদ্যোগ নেয় দুদক। খালেদার আবেদনে রুলের ওপর শুনানি করে গত বছরের ১৮ জুন রায় দেয় হাইকোর্ট। খালেদার করা আবেদন খারিজ করে মামলার ওপর থেকে স্থগিতাদেশ তুলে নেওয়া হয় হাইকোর্টের সেই রায়ে। সেই সঙ্গে তাকে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেওয়া হয়। ওই নির্দেশনা অনুযায়ী বিশেষ জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন খালেদা জিয়া। পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি পেয়ে হাইকোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়া গত বছরের ৭ ডিসেম্বর লিভ টু আপিল করেন। আবেদনে নিম্ন আদালতে চলমান এ মামলার কার্যক্রম স্থগিতেরও আরজি করা হয়।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow