Bangladesh Pratidin

ঢাকা, শনিবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ০২:৫৮
সম্মেলনে চাঁদাবাজি করলে ব্যবস্থা
—ওবায়দুল কাদের
নিজস্ব প্রতিবেদক

আওয়ামী লীগের সম্মেলন উপলক্ষে কেউ চাঁদাবাজি করলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিকভাবে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ার উচ্চারণ করেছেন দলটির প্রেসিডিয়াম সদস্য সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

গতকাল বিকালে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে দফতর উপ-কমিটির সঙ্গে অন্য উপ-কমিটির সমন্বয় সভা শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। তিনি বলেন, আমাদের দলের জাতীয় সম্মেলনে যে ব্যয় হবে, তা দলীয় তহবিল থেকে হবে। আমাদের সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশে এই ব্যয় করা হচ্ছে এবং হবে। এর বাইরে কেউ যদি সম্মেলন উপলক্ষে চাঁদাবাজি করেন, তাহলে তার বিরুদ্ধে সংগঠনের পক্ষ থেকে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সমন্বয় সভায় ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন মাহবুব-উল আলম হানিফ, দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবীর নানক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আফজাল হোসেন, বদিউজ্জামান ভুইয়া ডাবলু, আবদুস সোবহান গোলাপ, এনামুল হক শামীম, সুজিত রায় নন্দী, এস এম কামাল হোসাইন, ইকবালুর রহিম, অপু উকিল, শাহে আলম মুরাদ, মাহফুজুল হায়দার চৌধুরী রোটন, সাইফুর রহমান সোহাগ ও এসএম জাকির হোসাইন প্রমুখ।

গত শনিবার দলের জাতীয় কমিটিতে ২ কোটি ৬৫ লাখ টাকার সম্মেলনের বাজেট পাস হয়েছে—এই বাজেটে কি সম্মেলনের সব ব্যয় নির্বাহ হবে? এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, আমি মনে করি, হবে। এটা আমরা প্রমাণ করব। এজন্যই এই সম্মেলনকে বলছি ব্যতিক্রমী। আমরা আমাদের বাজেটের মধ্যেই একটা সুশৃঙ্খল, সুন্দর এবং স্মরণকালের সবচেয়ে বড় সমাবেশ জাতীয় সম্মেলনে উপহার দেব।

এবারের সম্মেলনের চমকটা কী—এ প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘চমকটা কী, আমি ঠিক বুঝতে পারছি না। এটা হলো সিদ্ধান্তের বিষয়। চমকের কোনো বিষয় নয়। আওয়ামী লীগের সম্মেলনের একটা ঐতিহ্য আছে। এই যে ডিজিটাল বাংলাদেশ; টেকনোলজির সঙ্গে ট্রেডিশনের সমন্বয় ঘটবে। এখানে প্রবীণের অভিজ্ঞতার সঙ্গে নবীনের এনার্জির সংমিশ্রণে নতুন মডেলে সময়ের প্রয়োজনে প্রবীণ-নবীনের সমন্বয়ে আমরা আওয়ামী লীগকে ভিশন-২০২১ ও ভিশন-২০৪১’ কে সামনে রেখে দলকে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঢেলে সাজাব।’ তিনি বলেন, সম্মেলনকে ঘিরে একটা রোডম্যাপ আছে। আমাদেরও প্ল্যান আছে—যাতে জনদুর্ভোগ সহনশীল পর্যায়ে থাকে। ওই সময় এত মানুষ ঢাকায় আসবে আর আমরা একবারেই যানজটমুক্ত পরিবেশে সম্মেলন করব, এটা বললে হয়তো শুনতেও ভালো লাগে না। তবে সম্মেলনের সময় যাতে যানজট যতটা সম্ভব সহনশীল পর্যায়ে থাকে, সে ব্যাপারে আমাদের চেষ্টা আছে।

up-arrow