Bangladesh Pratidin

ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর, ২০১৬

প্রকাশ : শনিবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০ টা আপলোড : ২২ অক্টোবর, ২০১৬ ০২:১৭
পরিবারের সদস্য নিতে কুয়েত প্রবাসীদের ক্ষেত্রে নয়া শর্ত
মঈন উদ্দিন সরকার সুমন, কুয়েত

কুয়েতে যেসব দেশের প্রবাসীর জন্য পারিবারিক স্পন্সর ও ভ্রমণ ভিসার অনুমতি আছে তাদের জন্য নতুন শর্ত দিয়েছে দেশটির সরকার। কুয়েতে স্পন্সরের মাধ্যমে স্ত্রী-সন্তান আনার ক্ষেত্রে নতুন শর্তে একজন প্রবাসীর মাসিক বেতন হতে হবে ৪৫০ কুয়েতি দিনার।

এর আগে কোনো কুয়েত প্রবাসীর মাসিক বেতন ২৫০ কুয়েতি দিনার হলেই তিনি তার স্ত্রী-সন্তানকে স্পন্সর করে কুয়েতে নিতে পারতেন।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে কুয়েতের ইন্টেরিয়র মন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আল খালিদ আল সাবাহর বরাত দিয়ে এ সংবাদটি প্রকাশিত হয়। এতে বলা হয়, কুয়েতের মোট জনসংখ্যার তিন ভাগের দুই ভাগই বিদেশি। সব মিলিয়ে কুয়েতে প্রায় ৩৩ লাখ বিদেশি বাস করেন। কুয়েতে বসবাসকারী প্রবাসী পরিবারগুলোর সংখ্যা কমাতেই নতুন শর্তের উদ্দেশ্য। কুয়েতের আইন অনুযায়ী, কোনো বিদেশি যদি কুয়েতে কাজ করেন এবং তার রেসিডেন্সি পারমিট থাকে তাহলে তিনি তার স্ত্রী, সন্তান অথবা তার ওপর নির্ভরশীল পরিবারের বয়স্ক সদস্যকে স্পন্সর করে কুয়েতে নিজের কাছে রাখতে পারেন। প্রবাসীর স্ত্রী-সন্তানদের কুয়েতে নেওয়ার অনুমোদনের ব্যাপারটি নির্ভর করছে তার মাসিক বেতন বা উপার্জনের ওপর। মূলত পরিবারকে কুয়েতে নিয়ে নিজের কাছে রেখে ভরণ-পোষণ চালানোর মতো আর্থিক সামর্থ্য যার আছে তাকেই অনুমোদন দেওয়া হয়। ২০০৪ সালে এ শর্ত শিথিল করে ২৫০ কুয়েতি দিনার করা হয়েছিল। এর ফলে কুয়েতে প্রবাসী পরিবারের সংখ্যা খুব দ্রুত বেড়ে যায়। এটা হ্রাস করতেই এ সিদ্ধান্ত। তবে যেসব প্রবাসী আগে থেকেই কুয়েতে বসবাস করছেন অথবা কুয়েতে জন্ম নিয়েছেন কিন্তু মাসে ৪৫০ কুয়েতি দিনারের চেয়ে কম উপার্জন করেন তাদের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে এ বিষয়টি দেখার জন্য কুয়েতের আবাসন বিভাগের মহাপরিচালককে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow