Bangladesh Pratidin

প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০ টা আপলোড : ১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:৩৯
খালেদা জিয়া প্রতিহিংসায় আবু নাসের হাসপাতাল প্রকল্প বন্ধ করেন : নাসিম
নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, ২০০১ সালে ক্ষমতায় এসে খালেদা জিয়া খুলনায় আবু নাসের হাসপাতাল প্রকল্প বন্ধ করে দিয়ে ছোট মনের পরিচয় দিয়েছিল। শুধু নামের কারণে প্রতিহিংসা পরায়ণ হয়ে খুলনার মানুষের সেবার ক্ষেত্র বন্ধ করে দেওয়া হয়। যার জবাব বাংলার মানুষ দিয়েছে। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার সরকার মানুষের দ্বারপ্রান্তে স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দিতে কাজ করছে। গতকাল দুপুরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী খুলনায় শেখ আবু নাসের হাসপাতালের আইসিইউ সেবা, প্লাস্টিক সার্জারি ও বার্ন ইউনিট উদ্বোধন শেষে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন।

তিনি হাসপাতালটিকে ‘ইনস্টিটিউট’ হিসেবে ঘোষণা দিয়ে বলেন, এখানে শুধু স্বাস্থ্যসেবা নয়, স্বাস্থ্যবিষয়ক গবেষণা করা হবে, ডিগ্রি দেওয়া হবে। মতবিনিময় সভায় হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. বিধান চন্দ্র গোস্বামীর সভাপতিত্বে বক্তৃতা করেন শেখ হেলাল উদ্দিন এমপি, বিভাগীয় কমিশনার আবদুস সামাদ, আলহাজ তালুকদার আবদুল খালেক এমপি, বেগম মন্নুজান সুফিয়ান এমপি, আলহাজ মিজানুর রহমান এমপি, পঞ্চানন বিশ্বাস এমপি, খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ, চিকিৎসক নেতা ডা. বাহারুল আলম।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, কর্মক্ষেত্রে চিকিৎসক ও নার্সদের নিরাপত্তার জন্য সরকার ‘সুরক্ষা আইন’ করার উদ্যোগ নিয়েছে। তবে হাসপাতাল কোনো রাজনীতির জায়গা নয়। এখানে রোগীর সেবায় হৃদয়বান চিকিৎসক ও নার্সদের প্রয়োজন।

এর আগে স্বাস্থ্যমন্ত্রী সকালে খুলনা জেনারেল হাসপাতালের পরিদর্শনে গিয়ে জরাজীর্ণ ভবন অপসারণ করে নতুন ভবন নির্মাণের জন্য ৪০ কোটি টাকা বরাদ্দের ঘোষণা দেন। পর্যায়ক্রমে হাসপাতালটিকে ২৫০ শয্যায় উন্নীত করার আশ্বাস দেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বিএনপি শুরুতে সার্চ কমিটি না মানলেও পরে ভুল বুঝতে পেরে কমিটিতে নাম প্রস্তাব করেছে। রাষ্ট্রপতি তার সাংবিধানিক ক্ষমতা ব্যবহার করে শক্তিশালী নির্বাচন কমিশন গঠন করবেন। আর ২০১৯ সালে শেখ হাসিনার অধীনেই জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

এই পাতার আরো খবর
up-arrow